মাদ্রিদ: এই লড়াই সবার লড়াই, মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয়ের অঙ্গীকার পৃথিবীর প্রত্যেকটি মানুষের। ইতালির পর স্পেনে জাল ছড়িয়েছে বিশ্ব মহামারী COVID19। মৃতের সংখ্যা ৩,০০০ ছুঁই ছুঁই। এমন সময় মারণ করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্পেনে অর্থসাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসি। সংবাদমাধ্যম মার্কার রিপোর্ট অনুযায়ী আর্জেন্তাইন সুপারস্টার ১ মিলিয়ন ইউরো অর্থ ভাগ করে দিয়েছেন বার্সেলোনা ও আর্জেন্তিনায় তাঁর হোমটাউনের হাসপাতাল ক্লিনিকে।

লিও মেসি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় কৃতজ্ঞ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ টুইটারে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছে। তারা লিখেছে, ‘করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য লিও মেসি আমাদের অর্থসাহায্য করেছেন। পাশে দাড়ানোর জন্য তোমায় অনেক ধন্যবাদ লিও।’ মেসির পাশাপাশি করোনা-যুদ্ধে সমসংখ্যক অর্থসাহায্যে এগিয়ে এলেন ম্যাঞ্চেস্টার সিটি কোচ পেপ গুয়ার্দিওয়ালা।

জানা গিয়েছে, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অ্যাঞ্জেল সোলার ড্যানিয়েল ফাউন্ডেশন ও মেডিক্যাল কলেজ অফ বার্সেলোনার যৌথ উদ্যোগে একটি সচেতনতামূলক প্রচারে ১ মিলিয়ন ইউরো অর্থ সাহায্য করেছেন পেপ। কলেজ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সংকটের মুহূর্তে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনার কাজে ব্যবহৃত হবে প্রাক্তন বার্সা কোচের অর্থ।

উল্লেখ্য, মারণ ভাইরাস করোনা স্পেনের কাতালোনিয়া প্রদেশে দারুণ প্রভাব ফেলেছে। মানুষের মৃত্যুর নিরিখে উপরের দিকেই রয়েছে স্পেনের এই প্রদেশ। আর করোনায় অন্যতম প্রভাবিত এই প্রদেশেই বাস গুয়ার্দিওলার। ১৩ বছর বয়সে বার্সেলোনা অ্যাকাডেমিতে যোগদানের পর থেকে মেসিরও ঠিকানা কাতালোনিয়া প্রদেশ। ইতালির পর ইউরোপ মহাদেশে স্পেনেই COVID19-এ সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত। মৃতের নিরিখেও ইতালির পরেই স্থান স্পেনের।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব