স্টাফ রিপোর্টার, মেদিনীপুর ও বাঁকুড়া: এবার মেদিনীপুর শহরে শুরু হল পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ পালন৷ আগামী ৭ দিন ব্যাপী চলবে এই কর্মসূচি। সোমবার এর শুভ সূচনা হল মেদিনীপুর কালেক্টরেট মোড় থেকে।

প্রসঙ্গত পথ নিরাপত্তা নিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যেই ‘সেফ ড্রাইভ সেফ লাইফ’ নামক একটি উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। কিন্তু তাতেও দুর্ঘটনার বহর কমেনি শহরে। কমেনি হেলমেট ছাড়া গাড়ি চালানোর প্রবণতাও।

আরও পড়ুন: ব্লাড ব্যাঙ্কের দালালের হাতে আক্রান্ত রক্তদাতা

এরই মধ্যে জন-সচেতনতা বাড়াতে মেদিনীপুর আরটিও-র উদ্যোগে শুরু হল ‘পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ’। জেলাশাসক পি.মোহন গান্ধী একটি বাইক র‍্যালির মাধ্যমে এই অনুষ্ঠানের সূচনা করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের অন্যান্য আধিকারিকরাও। দুর্ঘটনা কমাতে আগামী দিনে জেলা প্রশাসন যে আরও শক্ত হবে সে ব্যাপারে স্পষ্ট ইঙ্গিত দেন জেলাশাসক নিজেই। এদিন শহরে বাইক বা গাড়ি চালানোর নিয়মের হ্যান্ড বিল দেওয়ার পাশাপাশি বিনা হেলমেটে বাইক চালকদের দাঁড় করিয়ে সচেতন করা হয়৷ তাদের বোঝানো হয় বিনা হেলমেটে বাইক চালালে বা কানে ফোন নিয়ে গাড়ি চালালে ঠিক কি কি ক্ষতি হতে পারে৷ চালক ছাড়াও গাড়িতে থাকা বাকি যাত্রীদেরও ক্ষতির পরিমাণ কম হবে না৷ তাই পরিবার হোক বা বন্ধু কিংবা যাত্রী তাদের সকলের দায়িত্বই গাড়ির চালক বা বাইক-চালকের উপর নির্ভর করে৷

আরও পড়ুন: বৈঠকখানা বাজারের ধ্বংসস্তুপ যেন ‘ফাইনাল ডেস্টিনেশন’

উল্লেখ্য, এদিনের এই সচেতনতা অনুষ্ঠানে অনেক চালকই আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন৷ এই এক সপ্তাহ ব্যাপী পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ চলাকালীন প্রত্যেক চালকের উপর কড়া নজরদারি চালানো হবে মেদিনীপুর শহরে৷ সেই সঙ্গে বারবার সচেতনতা বার্তা তুলে ধরা হবে শহরের চালকদের সামনে৷ প্রসঙ্গত, ‘সেফ ড্রাইভ সেফ লাইফ’ প্রকল্পের উদ্যোগে কলকাতা শহরে দুর্ঘটনার সংখ্যা ক্রমশ হ্রাস পেয়েছে বলে দাবি রাজ্য সরকারের৷ তবে শুধু মহানগরী ছাড়া রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় এই সচেতনতা বার্তা পৌঁছে দেওয়ার জন্যই মেদিনীপুর জেলায় এই পথ নিরাপত্তা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়৷

অন্যদিকে, পথ নিরাপত্তার প্রচারে এবার ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে জন-সচেতনতামূলক প্রচারে নামল বাঁকুড়া জেলা পরিবহণ দফতর। সোমবার সপ্তাহের প্রথম দিনে বাঁকুড়া শহরে সচেতনতা পদযাত্রায় অংশ নিল প্রায় কয়েকশো ছাত্র ছাত্রী। সুদৃশ্য ট্যাবলো, রণপা ছিল এই পদযাত্রায়৷ পাশাপাশি ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে সচেতনতামূলক স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ডেও দেখা গিয়েছে এই পদযাত্রীয়৷ উল্লেখ্য, বাঁকুড়া শহরের পথে পা মেলালেন পুলিশ ও পরিবহণ দফতরের কর্মী-আধিকারীকরাও।

আরও পড়ুন: কী কারণে রিয়াল ছাড়লেন রোনাল্ডো

এই পদযাত্রায় অংশ নিয়ে পরিবহণ দফতরের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘বাঁকুড়া শহরের স্কুলগুলির ছাত্র-ছাত্রীরা পদযাত্রায় অংশ নিয়েছে। ছাত্র ছাত্রীদের পথ নিরাপত্তা বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করা গেলে তা সমাজের পক্ষে মঙ্গলজনক৷ একই সঙ্গে এদের হাত ধরে আগামী প্রজন্মও সুরক্ষিত ও সচেতন থাকবে। রাজ্য সরকারের তরফে ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ প্রকল্প ঘোষণা ও বাস্তবায়নের পর এই জেলায় দুর্ঘটনার সংখ্যা অনেকটাই কমেছে। এই সংখ্যা শূণ্যতে নামিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়েই জেলা জুড়ে বছরভর এই ধরনের কর্মসূচি পালন করা হবে।’’

দেখুন ভিডিও:

পদযাত্রায় অংশ নিয়ে খুশি সংশ্লিষ্ট ছাত্র-ছাত্রীরাও। সোমানিশা কর নামে এক ছাত্রী বলেন, ‘‘খুব ভালো লাগছে। পথে বেরোলে বাইক আরোহীদের হেলমেট ব্যবহার যেমন জরুরি, তেমনি সচেতনভাবে বাইক ও যানবাহন চালানোর আবেদন আমরা রাখছি। আমরা সবাই যদি এই বিষয়ে সচেতন হই তবেই সুস্থ সমাজ গড়ে উঠবে।’’ অন্যদিকে, পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর, এদিন বাঁকুড়া শহরের কয়েকশো ছাত্রছাত্রী এই পদযাত্রায় অংশ নেন। জেলা পরিবহণ দফতরের কার্যালয়ের সামনে থেকে এই পদযাত্রা শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন অংশ পরিক্রমা করে৷

আরও পড়ুন: মেডিক্যাল জয়ী, স্ট্রেচারে চেপেই জয়ের মিছিল

জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনা কমাতে মুখ্যমন্ত্রীর safe drive save life প্রকল্প৷ সেই প্রকল্পকে বাস্তবায়িত করতে মালদা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এক কর্মশালার আয়োজন করা হলো সোমবার মালদা কলেজ অডিটোরিয়ামে৷ এই কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য৷ ইংরেজবাজার পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান বাবলা সরকার-সহ জেলা প্রশাসনিক কর্তারা৷ একই সঙ্গে আজ থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত জেলার প্রতিটি ব্লকে এ নিয়ে কর্মশালা চলবে৷ পথচলতি সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে ছোট বড় সব গাড়িচালকের মাধ্যমে এই সচেতনতা শিবির করা হবে৷

আরও পড়ুন: ‘স্ত্রীকে খুন করার থেকে তিন তালাক দেওয়া ভাল’