স্টাফ রিপোর্টার , কলকাতা: ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই নামতে পারে শহরের তাপমাত্রা। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তবা ব্যাপক হারে পারদ পতন হবে সেই পূর্বাভাস দিচ্ছে না হাওয়া অফিস।

বিগত সপ্তাহ খানেকের বেশী সময় ধরে উধাও হয়ে গিয়েছে শীতের আমেজ। নভেম্বর মাসের যে শেষে পৌঁছে গিয়েছে বছর তা মালুম হচ্ছে শহরের মানুষের। সকালের দিকে অল্প ঠাণ্ডা ভাব থাকছে। বেলা বাড়লে রীতিমত গরম হচ্ছে। দুপুরের দিকে পাখাও চালাতে হচ্ছে অনেক বাড়িতে। সেই তুলনায় ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে কলকাতার তাপমাত্রা সামান্য নামতে পারে বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা। আজ শনিবার কলকাতার তাপমাত্রা ছিল সর্বনিম্ন ১৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশী। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ঠেকে গিয়েছে যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৯৯ শতাংশ, যা সাধারণত বর্ষাকালে হয় । সর্বনিম্ন ৫২ শতাংশ। অথচ বৃষ্টি হচ্ছে না। ফলে মেঘলা আকাশে বেলা বাড়লে বাড়ছে গরম।

কিন্তু কেন এই পরিস্থিতি ? আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, পশ্চিম ভারতে পশ্চিমি ঝঞ্জা চলছে। এর আগে উত্তর ভারতে থেকে বাংলার দিকে আসা ঠাণ্ডা হাওয়ার গতিপথ আটকে গিয়েছিল। বর্তমানে ঠাণ্ডা হাওয়া আসার গতিপথ খুলতে শুরু করেছে নেই। ফলে নামতে পারে শহরের তাপমাত্রা।

উত্তরবঙ্গের আট জেলার আবহাওয়া আপাতত শুষ্ক থাকবে। দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়াও শুষ্ক থাকবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। শনিবার জেলা ও বিভিন্ন অঞ্চলের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা নভেম্বরে যেন উষ্ণ শীতের প্রমাণ দিচ্ছে। আসানসোল ২৯.৬, বালুরঘাট ২৮, বাঁকুড়া ৩০.৪, ব্যারাকপুর ৩০.৮, বর্ধমান ৩১.৪, ক্যানিং ২৯.৬, কাঁথি ২৮.২, কোচবিহার ৩০.৪, শিলিগুড়ি ২৮.৭, শ্রীনিকেতন ৩০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।