ফাইল ছবি।

স্টাফ রিপোর্টার , কলকাতা : বিশ সাল শেষে বিষক্ষয় হবে কী না জানা নেই তবে  জাঁকিয়ে শীতকে সঙ্গে নিয়েই বর্ষবরণের দিকে এগোচ্ছে কলকাতা তা স্পষ্ট। হাওয়া অফিসের তিলত্তমার পারদ মাপক রেকর্ড সেই তথ্যই দিয়েছে। সকাল থেকেই হাজির উত্তুরে হাওয়া, সঙ্গে স্বাভাবিকের নীচেই অবস্থান করা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। তবে বেলার দিকে পারদ বেড়েছে গত ৪৮ ঘণ্টায় বাড়লেও বুধবার তা ফের এক ডিগ্রি কমে গিয়েছে। পাশাপাশি সর্বনিম্ন আর্দ্রতা তেমন না থাকায় শীত হাজির থাকছে দিনভর।

আজ ৩১ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা বুধবার বিকালে ছিল ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আজ আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৫ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৩৯ শতাংশ। দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা সামান্য বেড়ে হয়েছে ১৩.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তুলনায় সল্টলেকের সকালের তাপমাত্রা বেশ কিছুটা বেড়েছে। এদিন সকালে ওই অঞ্চলের তাপমাত্রা রয়েছে ১৫.০ ডিগ্রি হয়ে গিয়েছে।

৩০ ডিসেম্বর বুধবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা মঙ্গলবার বিকালে ছিল ২৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আজ আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৯ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৪২ শতাংশ। দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সল্টলেকের তাপমাত্রাও সকালে ছিল ১৪.০ ডিগ্রিতে।

২৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা সোমবার বিকালে ছিল ২৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আজ আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৯ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৪১ শতাংশ। দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সল্টলেকের তাপমাত্রাও সকালে রয়েছে ১২.৫ ডিগ্রিতে। সোমবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি কম। রবিবার বিকালে শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম।

প্রসঙ্গত ২৫ ডিসেম্বরের আগেই জানানো হয়েছিল, তাপমাত্রা শহরে অল্প বাড়লেও তা দ্রুত ফের নামবে। ঠিক সেটাই হয়েছে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস মিলিয়ে ২৭ ডিসেম্বর ২০২০ শীতের মরসুমের শীতলতম দিন ছিল। ২১ ডিসেম্বর সোমবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল সর্বনিম্ন ১১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সেই রেকর্ড ভেঙে রবিবার আরও ০.২ ডিগ্রি নামে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। রবিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা শনিবার বিকালে ছিল ২৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৯ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৩৮ শতাংশ। দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শনিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা শুক্রবার বিকালে ছিল ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৮ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৪২ শতাংশ। দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সল্টলেকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.