স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: মানসিক ভারসাম্যহীন এক আদিবাসী মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করল পুলিশ৷ ধৃতের নাম, আন্ধারু বর্মণ৷ ঘটনাটি ঘটেছে কুশমন্ডির দেহবন্দ এলাকায়৷ লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার রাতে তাকে উত্তর দিনাজপুরের ইটাহার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়৷

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, স্থানীয় একটি ব্রিজের কাছে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নির্যাতিতা মহিলাকে পড়ে থাকতে দেখেন এলাকার মানুষ। খবর পেয়ে পুলিশ ওই মহিলাকে উদ্ধার করে প্রথমে রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ সেখান থেকে তাঁকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

পড়ুন: রীতিমত ওয়েবসাইট বানিয়ে চলছিল র‍্যাকেট! ফোনেই মিলত কলগার্ল

রবিবার রাতেই ঘটনার তদন্তে নেমে কুশমন্ডি থানার পুলিশ রামপ্রবেশ শর্মা নামে একজনকে গ্রেফতার করে। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদের পর সোমবার রাতে ইটাহার এলাকা থেকে আন্ধারু বর্মনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘটনায় আরও কেউ জড়িত রয়েছে কিনা সেই ব্যাপারে মঙ্গলবার সকালেও স্পষ্ট করে পুলিশ কিছু জানাতে চায়নি।

মালদহ মেডিক্যাল কলেজ সূত্রের খবর, নির্যাতিতা মহিলার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ জেলার পুলিশ সুপার প্রসূন বন্দোপাধ্যায় জানিয়েছেন, কুশমন্ডির ঘটনায় এখনও পর্যন্ত দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনায় আরও কেউ জড়িত রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

এদিকে ধৃত দু’জনকে এদিন আদালতে তোলা হলে বুনিয়াদপুর মহকুমা আদালতের বিচারক জামিনের আবেদন খারিজ করে ১১দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। ধৃত রামপ্রবেশ শর্মা ও আন্ধারু বর্মণের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV