স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে বৃদ্ধা মাকে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠল মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের বিরুদ্ধে। মৃতার নাম বেলা মালাকার (৬২)। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া শহরের ২০ নম্বর ওয়ার্ডের চটপুকুর বস্তি এলাকায়। এই ঘটনায় বৃদ্ধার ছেলে অভিযুক্ত তাপস মালাকারকে বাঁকুড়া সদর থানার পুলিশ আটক করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে রাস্তার পাশে কল থেকে জল নেওয়াকে কেন্দ্র করে মায়ের সঙ্গে তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়ে অভিযুক্ত ওই যুবক৷ তখনই ভারি কিছু দিয়ে বৃদ্ধা বেলা মালাকারকে মাথায় আঘাত করে অভিযুক্ত ছেলে বছর সাতাশের তাপস মালাকার। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন বৃদ্ধা। এই খবর জানাজানি হতেই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যে ছড়ায়৷ এলাকার মানুষ ছুটে আসেন। খবর দেওয়া হয় বাঁকুড়া সদর থানায়।

মৃতার আর এক ছেলে যাদব মালাকার বলেন, ভাই সম্পূর্ণরূপে মানসিক ভারসাম্যহীন। ওর চিকিৎসা চলছে। মায়ের সঙ্গে ভাইয়ের প্রায়শই ঝামেলা হত। আমি ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলাম না৷ বাজারে গিয়েছিলাম। খবর পেয়ে এসে দেখি মা মারা গিয়েছে।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযুক্ত তাপস মালাকারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়৷ পাশাপাশি মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠায়। পুলিশের পক্ষ থেকে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।