নদীয়া: জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে নদীয়ায় সংগঠন ঢেলা সাজাচ্ছে বিজেপি৷ নদীয়ার কৃষ্ণগঞ্জ প্রায় ৪০০ সিপিএম কর্মীদের দলবদলের পর ফের হরিণঘাটায় দলের নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করতে মাঠে নামলেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আজ সন্ধ্যায় নদীয়ার হরিণঘাটার দক্ষিণ দত্তপাড়া বাজারে বিজেপির ডাকা বিশাল জনসভায় অংশ নেন জয়৷ মঞ্চে দাঁড়িয়ে আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূলকে টেক্কা দিয়ে দলীয় কর্মীদের নির্বাচনে লড়াই করার বার্তা দেন তিনি৷

আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপির শক্তি বৃদ্ধি ঘটাতে গ্রামে গ্রামে সভা করে কর্মীদের চাঙ্গা করার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন জয়৷ এদিনের সভামঞ্চ থেকে অবিলম্বে ডেঙ্গু রোধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে ডেঙ্গুতে মৃতের পরিজনদের নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ি ঘেরাওয়ের হুমকি দেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বিজেপির সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে ডেঙ্গু প্রসঙ্গে উত্থাপন করে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে জয় বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘আপনাকে আমি এই মঞ্চ থেকে হুঁশিয়ারি দিচ্ছি। আপনি ডেঙ্গু নিয়ে সতর্ক হোন। তা না হলে ডেঙ্গুতে যারা মারা গিয়েছেন, তাঁদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আপনার বাড়ি ঘেরাও করব।”

সভা মঞ্চ থেকে জেলবন্দি তৃণমূল সাংসদ তাপস পাল ও নাম না করে আর এক টলি অভিনেত্রীকে আক্রমণ করেন তিনি। জয়ের কথায়, ‘‘ভাগ্য ভালো আমি লোভে পড়ে তৃণমূলে যোগ দিইনি। তা না হলে আমার অবস্থা হত আমার বন্ধুর মতো। আমাকে জেলে ভিতর বসে থাকতে হত।” টলি অভিনেত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‘তৃণমূলে একজন অভিনেত্রী আছেন। একসময় সবাই তাকে খুব ভালোবাসতো। সবাই তার সিনেমা দেখতে পছন্দ করত। তার অবস্থা এখন সঙ্কটজনক। এখন সিবিআই ও ইডির ভয়ে তাঁকে পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে।” এদিনের এই সভায় ভিড়ও ছিল চোখে পড়ার মতো৷ প্রায় আট-দশ হাজার মানুষ ওই সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন৷