কলকাতা:  শুরু বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো। আজ দ্বিতীয়া। তার মধ্যে পুজোর আগে শেষ রবিবার। বেলা বাড়তেই ভিড় বাড়ছে বিভিন্ন পুজো মন্ডপে। সবাই চাইছেন যতটা ফাঁকায় ফাঁকায় দেখে নেওয়া যায় ঠাকুর!

অন্যদিকে চলছে শেষ মুহূর্তের কেনাকাটাও। এরই মধ্যে আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে করোনা নিয়ে। গত কয়েকদিনে করোনা সংক্রমণের গ্রাফ ক্রমশ উপরের দিকে উঠছে। এই পরিস্থিতিতে জরুরি বৈঠক ডেকেছেন মুখ্যসচিব। আগামীকাল সোমবার নবান্ন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। এই বৈঠকে সমস্ত জেলার জেলাশাসক, পুলিশ সুপার এবং মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের থাকার কথা রয়েছে।

জানা যাচ্ছে, মুখ্যসচিবের ডাকা জরুরি বৈঠকে কোভিডবিধি মেনে পুজোর চূড়ান্ত রূপরেখা তৈরি হতে পারে। এছাড়াও করোনা রুখতে জেলাগুলি কি সতর্কমূলক ব্যবস্থা নিয়ে সে বিষয়ে জানার চেষ্টা করতে পারেন মুখ্যসচিব। প্রয়োজনে কিছু নির্দেশও দিতে পারেন তিনি।

মুখ্যসচিবের ডাকা এই জরুরি বৈঠকে বিসর্জনের গাইডলাইন নিয়েও কথা হবে বলে জানা যাচ্ছে। ইতিমধ্যে বিসর্জন এবং দুর্গা পুজো নিয়ে বিশেষ গাইড লাইন দিয়েছে রাজ্য সরকার। কেন্দ্রের তরফেও কিছু গাইড লাইন বেঁধে দেওয়া হয়েছে। সেই বিষয়ে আলোচনা হতে পারে বলে খবর।

সব দিক থেকে এই বৈঠক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

উৎসবের আগে ক্রমশ বাড়ছে সংক্রমণ। গত ২৪ ঘন্টায় ৩ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। উৎসবের মরশুমে ভয়াবহ আকার নিতে পারে করোনা! বারবার সতর্ক করছেন ডাক্তাররা।

এমনকি কেন্দ্রের তরফেও সাধারণ মানুষকে সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে। কিন্তু কে কার কথা শোনে! নিয়মকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই চলেছে কেনাকাটা! খাওয়াদাওয়া। এমনকি যেখানে বাচ্চাদের বের হতে নিষেধ করা হচ্ছে সেখানে সবাই বের হচ্ছে। এই অবস্থায় উৎসবের মরশুমে কঠোর হতে চলেছে রাজ্য সরকার।

মনে করা হচ্ছে এই বৈঠক থেকে নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম বেঁধে দেওয়া হতে পারে। উৎসবের মরশুমে কীভাবে চলতে হবে সেই সংক্রান্ত গাইড লাইন ফের একবার বেঁধে দেওয়া হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।