শুভেন্দু ভট্টাচার্য, কোচবিহার: গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে সাংবাদিকদের ‘বাউন্সার’ সামলাতে গিয়ে খেই হারালেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সুব্রত বক্সি৷

চেনা মেজাজে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিলেও পালটা তোপ দেগেছেন সাংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে৷ তাঁর দাবি, নিজেদের অস্তিত্ব বাঁচাতেই মিডিয়া তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে সংবাদ পরিবেশন করছেন৷

আরও পড়ুন: বোন পাতিয়ে দেড় বছর ধরে লাগাতার ধর্ষণে আটক অভিযুক্ত

প্রসঙ্গত, কোচবিহারের হাড়িভাঙ্গায় তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীকোন্দলের অভিযোগ উঠেছিল৷ মঙ্গলবার কোচবিহারের নেতাজি সুভাষ ইনডোর স্টেডিয়ামে তৃণমূলের পঞ্চায়েতিরাজ সম্মেলনে এসেছিলেন সাংসদ সুব্রত বক্সি৷ সম্মেলনের পর সাংবাদিকরা কোচবিহার জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল নিয়ে সুব্রত বক্সিকে প্রশ্ন করেন৷

সেই প্রশ্নের প্রেক্ষিতেই তিনি ওই অভিযোগ সরাসরি উড়িয়ে দিয়েছেন৷ দাবি করেছেন, তিনি যতবারই কোচবিহারে গিয়েছেন, ততবারই কোনও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব দেখতে পাননি৷ বরং উলটে তোপ দেগেছেন সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে৷ তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের দাবি, কোচবিহারে কোনও গোষ্ঠী কোন্দল নেই৷ সমস্তই সংবাদমাধ্যম নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য এই ধরনের খবর পরিবেশন করছে৷

আরও পড়ুন: গাছে ঝুলছেন স্বামী, বিছানায় স্ত্রীর মৃতদেহ

যদিও সম্মলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বারবার ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াইয়ের ডাক দেন৷ স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, ফাটল যদি না-ই থাকে, তাহলে কেন তিনি ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াই করতে বলছেন? একই সঙ্গে তিনি দলের পুরনো কর্মীদের দলে সম্মানের সঙ্গে নিয়ে আসার কথা বলেন৷ দল যাকে টিকিট দেবে সে যেমনই হোক না কেন, তাঁর সমর্থনে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে কোচবিহারকে বিরোধীশূন্য করতে আসরে নেমেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ কীভাবে জেলার সব পঞ্চায়েত আসন জেতা যায় তাঁর দিশা দিতে আজ কোচবিহার নেতাজি সুভাষ ইন্দোর স্টেডিয়ামে এক পঞ্চায়েতিরাজ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়, যার প্রধান বক্তা ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি৷

আরও পড়ুন: তাহলে কি বিজেপিতেই যাচ্ছেন বাইচুং?

এছাড়াও ছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ-সহ জেলার অন্যান্য নেতারা৷ এদিনের এই বৈঠকে ছিলেন জেলার বিভিন্ন ব্লকস্তর থেকে আসা কর্মীরা৷ এদিন ইনডোর স্টেডিয়াম কানায় কানায় কর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সমস্ত নেতারাই আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মসূচি ভোটারদের কাছে তুলে ধরতে কর্মীদের নির্দেশ দেন৷

এদিনের পঞ্চায়েতিরাজ সন্মেলনের মধ্যে দেখা গিয়েছে বাংলার প্রাক্তন ক্রিকেটার শিবশংকর পালকে, স্বাভাবিক ভাবেই তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করতে পারেন বলে জল্পনা শুরু হয়েছে। কোচবিহারে স্টেডিয়ামে কোচিং ক্যাম্প শুরু করেছে শিবশংকর পাল, এই ক্যাম্পের উদ্যোক্তা উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রীর পুত্র পঙ্কজ ঘোষ৷ তাঁর সঙ্গেই এদিন শিবশংকরকে মঞ্চে দেখা যায়। তবে এই বিষয়ে শিবশংকর পালের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷

আরও পড়ুন: বাইচুং-তৃণমূল সম্পর্ক নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস করলেন মুকুল!

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ