নয়াদিল্লি: জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ভারতীয়রা এখন শ্রীলঙ্কায় না যান৷ আর একান্তই যদি যেতে হয় তাহলে কলম্বোয় নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনের সঙ্গে তারা যেন যোগাযোগ করেন৷ শনিবার এমনই সতর্কতা জারি করল ভারতের বিদেশমন্ত্রক৷

এদিন একটি বিবৃতি জারি করে বিদেশমন্ত্রক৷ সেখানে যা বলা হয়েছে তাতে পরিস্কার এখন শ্রীলঙ্কা যাওয়া ভারতীয়দের পক্ষে নিরাপদ নাও হতে পারে৷ তাই বিশেষ কাজ বা জরুরি প্রয়োজন ছাড়া শ্রীলঙ্কা না যাওয়াই ভালো৷ আর যারা যাবেন তারা অবশ্যই কলম্বোয় অবস্থিত ভারতীয় হাই কমিশনের সঙ্গে যেন যোগাযোগ রাখেন৷ এছাড়া হামবানটোটা ও জাফনাতে ভারতীয় কনস্যুলেটের সাহায্যও নিতে পারেন৷

ভারতীয়দের জন্য বেশ কয়েকটি হেল্পলাইন নম্বরও চালু করেছে বিদেশমন্ত্রক৷ জানিয়েছে, কোনও অসুবিধা হলে এই নম্বরগুলিতে তারা যেন যোগাযোগ করেন৷ নম্বরগুলি হল- ৯৪৭৭২২৩৪১৭৬, ৯৪৭৭৭৯০২০৮২, ৯৪১১২৪২২৭৮৮ এবং ৯৪১১২৪২২৭৮৯৷ বিবৃতিতে বিদেশমন্ত্রক ভারতীয়দের সতর্ক করে জানিয়েছে, সানডে ইস্টারে হামলার পর শ্রীলঙ্কা জুড়ে কড়া নিরাপত্তা৷ সব জায়গাতেই নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে৷ দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি৷ একই সঙ্গে রাতে কারফিউ চলছে৷ ফলে এখন যদি কেউ ঘুরতে যান তাহলে নানা ঝক্কি পোহাতে হতে পারে৷

ভারতের পাশাপাশি দ্বীপরাষ্ট্রে বসবাসকারী অস্ট্রেলীয় নাগরিকদের সাবধান করেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার৷ দেশটির বিদেশমন্ত্রক বলেছে, শ্রীলঙ্কায় ফের হামলা চালাতে পারে জঙ্গিরা৷ হামলা হবে এমন স্থানে যেখানে বিদেশিরা ঘুরতে যান বেশি৷ সেই সব পর্যটন ক্ষেত্রেও জারি হয়েছে নিরাপত্তা৷

 

এদিকে ইস্টার ডে’তে কারা হামলা চালিয়েছে সেই নিয়ে ধন্দ আরও বেড়েই চলেছে৷ আইসিস এই হামলার জন্য দায় স্বীকার করলেও শ্রীলঙ্কা সরকার কট্টরপন্থী সংগঠন এনটিজে’কেই দায়ী মনে করছে৷ এবং শনিবার এই সংগঠনকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে৷ এনটিজে ছাড়া জেএমআই নামে আরও এক কট্টর ইসলামিক সংগঠনকে নিষিদ্ধের তালিকায় ঢোকানো হয়েছে৷ উল্লেখ্য, ২১ এপ্রিল ইস্টার ডে’র দিন শ্রীলঙ্কার তিনটি গির্জা ও চারটি হোটেলে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ হয়৷ তাতে ২৫০র বেশি মানুষের মৃত্যু হয়৷ ৫০০র বেশি আহত হন৷