নয়াদিল্লি: লোকসভা ভোটের প্রচারে রাজনৈতিক নেতারা একে অপরকে আক্রমণ করবেন সেটাই স্বাভাবিক৷ কিন্তু শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়ে সেই আক্রমণ এখন পৌঁছে গিয়েছে ব্যক্তিগত পর্যায়ে৷ প্রধানমন্ত্রীর পরিবার নিয়ে আক্রমণ শানিয়েছিলেন বহুজন সমাজ পার্টি সুপ্রিমো মায়াবতী৷ এবার ব্যক্তিগত আক্রমণের মুখে পড়লেন তিনি নিজেও৷

আরও পড়ুন: গডসেকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, ক্ষমা চাইলেন স্বাধী প্রজ্ঞা

পরিবার নিয়ে মোদীকে কথা শুনিয়েছিলেন মায়াবতী৷ বলেছিলেন, উনি অন্যের স্ত্রী ও বোনদের সম্মান জানাবেন কী করে যখন রাজনৈতিক স্বার্থে তিনি নিজের স্ত্রীকেই ত্যাগ করেছিলেন? এই মন্তব্যের জন্য বিজেপি শিবির থেকে প্রবল আক্রমণের শিকার হতে হয় বসপা নেত্রীকে৷ এবার মুখ খোলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামদাস আঠাওয়ালে৷

শুক্রবার মোদীর মন্ত্রীসভার এই মন্ত্রী বলেন, ‘‘মায়াবতীও তো বিবাহিতা নন৷ তিনিও তাহলে পরিবারের মূল্য বোঝেন না৷ মায়াবতীর প্রতি আমরা শ্রদ্ধাশীল৷ কিন্তু তাঁর এই ধরনের মন্তব্য করা উচিত হয় নি৷’’ সংবাদসংস্থা এএনআইকে এই কথা জানান রামদাস আঠাওয়ালে৷

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার এক জনসভায় গিয়ে বিজেপি ও নরেন্দ্র মোদীকে প্রবল আক্রমণ করেন মায়াবতী৷ তোপ দেগে বলেন, ‘‘কেন্দ্রে এখন গুরু ও চ্যালার সরকার চলছে৷’’ অর্থাৎ মোদী ও অমিত শাহ কেন্দ্রের সরকার চালাচ্ছে৷ মায়াবতীর দাবি, এই গুরু চ্যালার সরকার বেশিদিন থাকবে না৷ আগামী ২৩ মে লোকসভা ভোটের ফল ঘোষণা হবে৷ সেই দিনই এই সরকারের বিদায়ঘণ্টা বেজে যাবে৷

আরও পড়ুন: কুকীর্তির পর্দাফাঁস, হোটেলের রুমে অশ্লীল অবস্থায় ধরা পড়ল ৮

বসপা নেত্রীর অভিযোগ, বিজেপিতে মহিলারা ভয় পাচ্ছেন৷ তাদের স্বামীরা নরেন্দ্র মোদীর মতো স্ত্রীদের ছেড়ে না চলে যায়৷ আর এখন ভোট শেষ পর্যায়ে৷ এই সময় মোদীর মা বোনেদের সম্মানের কথা মনে হয়েছে৷ তিনি অন্য মহিলাদের সম্মান কী দেবেন? তিনি নিজেই তো তাঁর স্ত্রীকে ছেড়ে চলে যান৷