চেন্নাই: ‘ক্যাচেজ উইন ম্যাচেজ’৷ ক্রিকেট দুনিয়ায় পুরনো প্রবাদ৷ ফের মনে করিয়ে দিলেন ম্যাক্সওয়েল৷ এক হাতেই কোহলিকে মাত দিলেন ম্যাক্সি৷

স্মিথের দলের সেরা ফিল্ডার হিসেবে এতদিন তিনিই ছিলেন এক নম্বরে৷ দু’নম্বরে অবশ্যই স্মিথ আর তিনে ওয়ার্নার৷ এদিন অবশ্য ম্যাক্সওয়েলের ক্যাচ দেখলে তাঁকেই অবিসংবাদিতভাবে এক নম্বরে রাখতে পারে ক্রিকেটবিশ্ব৷

আরও পড়ুন- স্মিথব্রিগেডকে ২৮২ রানের টার্গেট দিল ভারত

ষষ্ঠ ওভারে অফ স্টাম্পের বাইরে পড়া কুল্টারনাইলের প্রথম বলটাই পয়েন্টের উপর দিয়ে বাউন্ডারিতে পাঠানোর চেষ্টা করেছিলেন ভারত অধিনায়ক৷ তখনও খাতা খুলতে পারেননি বিরাট৷ স্কোরবোর্ড দেখাচ্ছে পাঁচ ওভার শেষে ভারত ১১/১৷

কোহলির ব্যাট ছুঁয়ে বল বেড়োতেই, মুহূর্তেই পারফেক্ট টাইমিং ম্যাক্সওয়েলের৷ আর এক হাতেই অসাধারণ ক্যাচ৷ চোখের পলকে কোহলিকে শূন্য রানে সাজঘরের ফেরান ম্যাক্সি৷ কোহলিও বুঝে উঠতে পারেননি, অজি ব্যাটসম্যানের অবিশ্বাস্য ক্যাচে দেখে শেষ পর্যন্ত হাসি চাপতে পারেননি বিরাট৷ এরপরই ম্যাক্সওয়েলের কেরামতির নমুমা মুহূর্তেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল৷ টুইটে কোহলি অনুরাগীরা লিখেছেন,‘বিরাটের মতো রান মেশিনকে থামানোটা মুখের কথা নয়, এমন একটা অসাধারণ ক্যাচই একমাত্র কোহলিকে থামাতে পারে’

শুরুতে কুল্টারনাইল-স্টোয়েনিসের বোলিং দাপটের সামনে ৮৭ রানে পাঁচ উইকেট হারালেও ধোনি-পান্ডিয়ার শতরান পার্টনারশিপে ভর করে নির্ধারিত পঞ্চাশ ওভার শেষে ২৮১ রান তুলেছে ভারত৷

আরও পড়ুন- বিজ্ঞাপনেও মাস্টারকে অনুসরণ করল ‘চেজ মাস্টার’

চলতি বছরের শুরুতে ভারত-অজি মহারণে রাঁচি টেস্টে ফিল্ডিংয়ের সময় বাঁ-হাতে চোট পেয়েছিলেন কোহলি৷ সেবার ভারতের ব্যাটিং-এর সময় পূজারা একটা শট বাউন্ডারি রোপের সমনে আটকাতে দিয়ে কোহলিকে নকল করে বাঁ-হাত ধরে আঘাত লাগার অভিনয় করেন ম্যাক্সওয়েল৷ এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার সহঅধিনায়ক ওয়ার্নারকে আউট করে ডান কাঁধ ধরে চোটে লাগার অভিনয় করে অজিদের অঙ্গ-ভঙ্গির পাল্টা জবাব দিয়েছিলেন কোহলি৷ স্মিথের ‘ব্রেনফ্রেড’ কান্ডের পর বাইশ গজে কোহলি-ম্যাক্সওয়েলের এই ঘটনায় সিরিজের উত্তাপ দ্বিগুণ বাড়িয়ে দিয়েছিল

এবার প্রথম ওয়ান ডে’তে কোহলিকে অসাধারণ ক্যাচে সাজঘরে ফিরিয়ে ম্যাক্সওয়েল শুধু ১-০ এগিয়ে গেলেনই না, বিরাটকেও কড়া চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা ফিল্ডার৷

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।