মুম্বই: চরম অমানবিকতার পরিচয়। মানুষের নৃশংসতা কতটা ভয়ংকর হতে পারে, দেখিয়ে দিল মহারাষ্ট্রের এই ঘটনা। ৯০টি কুকুরকে যেভাবে হত্যার ঘটনা ঘটল, তাতে স্তব্ধ মানবিকতা। সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠেছে নিন্দার ঝড়। প্রায় ৯০টি কুকুরকে নাক-মুখ ও লেজ তার দিয়ে মুড়িয়ে হত্যা করার ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রে। মহারাষ্ট্রের বুলধনা জেলার এই ঘটনায় বিস্মিত সকলেই।

সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেওয়া পুলিশি তথ্য এই ঘটনার সত্যতা প্রমাণ করেছে। বাণিজ্য নগরী মুম্বই থেকে ৫০০ কিমি দূরেই এই বুলধনা জেলা। কুকুরদের এই হত্যালীলার ঘটনা ঘটে জেলার বিভিন্ন জায়গায়। পূর্ব মহারাষ্ট্রের গিরদা-সাভালদাবড়া রোডের বিভিন্ন জায়গায় কুকুরদের মৃতদেহগুলি পাওয়া যায়। আশ্চর্যভাবে সবকটি কুকুরকেই একই নৃশংসতায় ও একই কায়দায় মারা হয়েছে। এই রাস্তাটি জঙ্গলের পাশ দিয়ে গিয়েছে, স্বাভাবিকভাবেই লোকসংখ্যা কম, তবে কে বা কারা এই হত্যালীলা চালাল, তা বুঝে উঠতে পারছে না পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, ১০০টিরও বেশি কুকুরকে এভাবে বেঁধে ফেলে রাখা হয়েছিল। তার মধ্যে ৯০টি কুকুরই মারা গিয়েছে। বাকিদের উদ্ধার করা হয়েছে। গোটা এলাকা থেকে একটা দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়তেই সন্দেহ হয় স্থানীয় মানুষের। তারপরেই পুলিশকে খবর দেন তাঁরা।

পুলিশের সাথে সাথেই খবর যায় বন দফতরে। আসেন বনাধিকারিকরাও। কিছু কুকুর তখনও বেঁচে ছিল। পুলিশ ও বনদফতরের আধিকারিকরা প্রাথমিক চিকিৎসার পরে তাদের ছেড়ে দেন।

অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করেছে পুলিশ। প্রিভেনশন অফ ক্রুয়েলটি টু অ্যানিমালস অ্যাক্ট, ১৯৬০ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে।