বালি: সচেতনতার লেশমাত্র নেই। বালিতে বাজার চালু হতেই কাতারে কাতারে মানুষের ভিড়। সামাজিক দূরত্বকে শিকেয় তুলে বাজারের থলি হাতে ভিড় জমিয়েছেন ক্রেতারা। অনেকেরই মুখে নেই মাস্ক। এমনকী বিক্রেতাদেরও অনেকে মাস্ক পরেননি। গায়ে গা ঘেঁষে দাঁড়িয়েই চলল বেচা-কেনা। চূড়ান্ত এই দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণের জেরে বালিতে করোনার সংক্রমণ ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা।

দেশজুড়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গোটা দেশে দেড় লক্ষ ছুঁতে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বাংলাতেও ব্যাপক হারে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা চার হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। একদিনে রাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে পাঁচ জনের।

রাজ্যে এ পর্যন্ত করোনায় মোট মৃত ২১১। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৯৩ জন। এই নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৪০০৯। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭২ জন সেরে ওঠার পরে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪৮৬ জন।

এই পরিস্থিতিতেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিধিকে শিকেয় তুলে মঙ্গলবার বালি বাজারে উপচে পড়া ভিড়। দীর্ঘ দু’মাস পর বাজার এবং দোকানগুলি খুলে দেওয়ার পর বহু মানুষ ভিড় জমিয়েছেন। দোকান চালু থাকলেও বাজার খোলা থাকছে।

সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। তাতে কি! ওই কয়েক ঘণ্টাতেই উপচে পড়া ভিড় বাজারে। লকডাউন শিকেয় তুলে সামাজিক দূরত্ব-বিধি না মেনে বাজার করতে বেরিয়ে পড়েন বাসিন্দারা। কারও মুখে মাস্ক ঢাকা তো কারও ফাঁকা-মুখ।

হাওড়ার ৮৮টি রাস্তাকে করোনার কন্টেনমেন্ট ‘এ’ জোন হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। যেখানে সবাইকে কঠোরভাবে লকডাউন মেনে চলতে বলা হয়েচে প্রশাসনের তরফে। যদিও প্রশাসনের সেই নির্দেশে অনেকেই কর্ণপাত করছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV