ইসলামাবাদ: শোনা গিয়েছিল জঙ্গিনেতা মাসুদ আজহারের মৃত্যু হয়েছে। পাক বিদেশমন্ত্রী বলেছিলেন খুবই অসুস্থ মাসুদ। কিন্তু সেসব জল্পনা উড়িয়ে মাসুদ নিজেই জানিয়েছে যে সে নাকি বেঁচে আছে এবং ভালই আছে।

জইশ-ই-মহম্মদের মুখপত্র আল-কালাম- এ একটি প্রতিবেদন লিখে এমন দাবিই করেছে জইশ প্রধান এবং পুলওয়ামা কাণ্ডের মূল চক্রী মাসুদ আজহার। যদিও ওই প্রতিবেদন আদতে মাসুদ লিখেছে নাকি এটাও নিছক প্রোপাগান্ডা তা স্পষ্ট নয়।

ওই প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, পাকিস্তানের বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার বোমাবর্ষণে জইশ দলের কারও কোনও ক্ষতি হয়নি, সবাই জীবিত এবং সম্পূর্ণ সুস্থ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে তিরন্দাজি অথবা শুটিং-এর প্রতিযোগিতায় নামার চ্যালেঞ্জও ছুড়েছে ভারতের এই ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ জঙ্গি।

‘সাদি’ ছদ্মনামে ওই মুখপত্রে লিখে থাকে লজইশ প্রধান মাসুদ আজহার।জানা গিয়েছে, এই মুখপত্রের সাম্প্রতিক সংখ্যায় পুলওয়ামা কাণ্ড এবং তার পরবর্তী বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে লেখা হয়েছে। পুলওয়ামা হামলার পর জানা যায় মাসুদ কিডনির অসুখে আক্রান্ত। কিন্তু সেই দাবি উড়িয়ে দিয়ে মাসুদ বলছে এসব নাকি মিথ্যা প্রচার করা হচ্ছে। পাক সেনার হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল বলেও শোনা যায়।

তার কথায়, ‘গত ১৭ বছর ধরে অসুস্থতার জন্য জইশের কেউ হাসপাতালে যায়নি। কখনও কোনও চিকিৎসকেরও প্রয়োজন পড়েনি।’ নিজের ভাল স্বাস্থ্যের জন্য ‘কোরান’ নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাকেই কারণ হিসেবে দেখিয়েছে সে। তার দাবি, এই কারণে মানসিক উত্তেজনা বা ডায়াবিটিস থেকেও সে সম্পূর্ণ মুক্ত। পুলওয়ামা হামলা প্রসঙ্গে মাসুদ বলেছে, কাশ্মীরিদের হৃদয়ে আগুন জ্বেলে দিয়েছে পুলওয়ামার আত্মঘাতী যুবক আলি আহমদ দার। এই আগুন সহজে নিভবে না।