নয়াদিল্লি : নিজেদের ব্যবসার ইতিহাসে এই প্রথম জিরো সেল রেকর্ড করল গাড়ি সংস্থা মারুতি সুজুকি। শুক্রবার মারুতি সুজুকির পক্ষ থেকে একথা ঘোষণা করা হয়েছে। জানা গিয়েছে এপ্রিল মাসে এই সংস্থা ভারতে কোনও ব্যবসা করতে পারেনি।

দ্বিতীয় দফার লকডাউন চলছে। ৩রা মে লকডাউন তোলা হবে, নাকি এই লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়বে, তা ঘোষণা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তবে লকডাউনের জেরে গাড়িশিল্পের হাল যে বেহাল, তা বলাই বাহুল্য। এবার মারুতি জানাল ভারতে গোটা এপ্রিল মাস ধরে তাঁদের কোনও বিক্রিই হয়নি। এবং এই ঘটনা তাঁদের সঙ্গে প্রথম। এরজন্য অবশ্য লকডাউনকেই দায়ী করছেন তাঁরা।

উল্লেখ্য ২২শে মার্চ প্রধানমন্ত্রী লকডাউন ঘোষণা করার পর থেকেই ব্যবসা প্রায় বন্ধ গাড়িনির্মাণ সংস্থাগুলির। তার মধ্যেই অন্যতম মারুতি। তবে করোনা আবহে একাধিক দুঃসংবাদের মধ্যেও খুশির খবর শুনিয়ে ছিল গাড়ি সংস্থাগুলি। লকডাউনের জেরে কর্মীদের কারও বেতনে কোপ পড়বে না। কোনও কর্মীকেই কাজ হারাতে হবে না, কাউকে ছাঁটাই করা হবে না, দেশজুড়ে চলা করোনা আতঙ্কের এই আবহে কর্মীদের স্বস্তি দিয়ে জানিয়ে দেয় স্কোডা ভক্সওয়াগেন, রেনল্ট, এমজি মোটর ইন্ডিয়া–র মতো একাধিক গাড়ি সংস্থা।

স্বাস্তির এই খবর মিলেছে ইটিঅটো–র একটি রিপোর্টে। ওই রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে, গাড়ি তৈরির একাধিক বড়-বড় সংস্থা জানিয়েছে, করোনা সংক্রমণ ও লকডাউনের জেরে সংস্থার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু তার জেরে কোনও কর্মীরই বেতনে কোপ পড়বে না।

এমনকী কাউকে চাকরি থেকেও ছাঁটাই করার কোনও ভাবনা নেই। এমনকী ওই রিপোর্ট অনুযায়ী কোনও-কোনও সংস্থা নাকি কর্মীদের বোনাস দেওয়ার কথাও ভাবছে। তবে এবার মারুতি কি পদক্ষেপ নেয়, সেটাই দেখার।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প