হিউস্টন: মঙ্গলের মাটিতে জল রয়েছে এ ব্যাপারে আরও একধাপ নিশ্চিত হল নাসার তৈরি কিউরিওসিটি। মঙ্গলবার নাসা তরফে এক রিপোর্ট প্রকাশ করে জানানো হয়েছে, মঙ্গলের মাটিতে অবশ্যই জল রয়েছে। তবে তা কখনই বরফ হয়ে জমে নেই। রয়েছে থকথকে ভাবে মাটির সঙ্গে মিশে। একই সঙ্গে নাসা তরফে জানানো হয়েছে মঙ্গলের মাটি পরীক্ষা করে এই নয়া তথ্য পাঠিয়েছে কিউরিওসিটি। এদিন কোপেনহেগেনে এক বিজ্ঞান আলোচনাচক্রে অংশ নিয়ে বিজ্ঞানী নেইলেশ বোহার নয়া রিপোর্টের কিছু অংশ পাঠ করে শুনিয়েছেন।

নাসা সূত্রে খবর, থকথকে জল মেশানো মাটি পরীক্ষা করে কিউরিওসিটি যে ছবি পাঠিয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, মাটির এই থকথকে ভাব সকালে সূর্য ওঠা অবধি স্থায়ী হচ্ছে। তার পরেই হারিয়ে যাচ্ছে। নাসার এই নয়া রিপোর্ট ফের জলের আশা যোগাচ্ছে ওয়াকিবহাল মহলে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.