স্টাফ রিপোর্টার , হাওড়া : সাধারণ মানুষের মধ্যে পারস্পরিক দূরত্ব সম্পর্কে সচেতন করতে ও বাজার-দোকান সচল রাখতে উদ্যোগী হল আমতার এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

‘করোনা’ মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী সারাদেশ জুড়ে ২১ দিনের ‘লকডাউন’ শুরু হয়েছে।’করোনা’ প্রতিরোধে অন্যান্য রাজ্যের মতো এরাজ্যের পুলিশ ও প্রশাসন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে। যদিও ‘লকডাউন’এ কাঁচা-আনাজ,ওষুধ,মুদিখানা,রান্নার গ্যাসের মতো এই সমস্ত জরুরি বিষয়গুলিকে চালু রাখার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। আর তাতেই ভিড় জমছে বিভিন্ন বাজার ও দোকানের সামনে।সকাল হলেই বাজারে উপচে পড়ছে ভিড়;আবার আতঙ্কিত মানুষ লম্বা লাইন দিচ্ছেন রেশন দোকানে।

সেই সমস্যা দূর করতে ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যে চুন দিয়ে বিশেষ ‘সুরক্ষারেখা’ টানতে উদ্যোগী হল স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির সদস্যরা।পাশাপাশি,নিয়মিত মাইক প্রচার করেও বাজারে আগত মানুষকে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখা ও একসাথে ভিড় না জমানোর আবেদন জানানো হবে বলেও জানা গেছে।অন্যদিকে,আমতা-২ ব্লকের বিভিন্ন রেশন,ওষুধ,মুদিখানা দোকানের সামনে লম্বা লাইনকে বিশেষ সুরক্ষারেখা দিয়ে সচেতন করতে মাঠে নেমেছে আমতা-২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুকান্ত কুমার পাল।তিনি নিজে বিভিন্ন দোকানের সামনে উপস্থিত থেকে সুরক্ষারেখা টানছেন।

একই উদ্যোগ নিতে দেখা গিয়েছে রাজ্যের অন্যান্য জেলাগুলিতেও। দেখাদেখি এখন প্রায় প্রত্যেকটি রাজ্যের প্রত্যেক স্থানে বাজার হাটে এই ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ এবং স্থানীয় প্রশাসন।