স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: ‘ভ্যালেন্টাইন ডে’র সকালে বুধবার বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁর উদ্যোগে ম্যারাথন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হল৷ এদিন জয়পুরের রাজগ্রামের পতাকা নেড়ে ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন বাঁকুড়া জেলা পুলিশ সুপার সুখেন্দু হীরা, রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তরের রাষ্ট্র মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা, সাংসদ সৌমিত্র খাঁ সহ এলাকার ব্লক ও জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা৷

উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে জয়পুরের রাজগ্রাম থেকে দৌড় প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে বিষ্ণুপুর স্টেডিয়ামে শেষ হয়৷ এবার প্রথম বছরের এই প্রতিযোগিতায় অনলাইন ও অফলাইনে ১৫৬ জন ও ৭৮০ জন আবেদন করেছিলেন৷ একই সঙ্গে এবার অন্যান্য রাজ্য থেকে 76 জন আবেদন করেছিলেন৷ এদিন সকলেই নির্ধারিত সময়ে নির্দিষ্ট স্থানে এসে দৌড় প্রতিযোগিতা শুরু করেন৷ এলাকায় প্রথমবার এই ম্যারাথন প্রতিযোগিতার সাক্ষী থাকতে রাস্তার দু’ধারে অসংখ্য মানুষ ভীড় করেন৷ প্রতিযোগিদের করতালি দিয়ে উৎসাহিত করেন তাঁরা৷

এদিন সকালে ম্যারাথন দৌড় উপলক্ষ্যে রাজগ্রাম-বিষ্ণুপুর রাস্তায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছিল৷ একই সঙ্গে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে কড়া নজরদারির ব্যবস্থা করেছিল বাঁকুড়া জেলা পুলিশ৷ ফলাফল ঘোষণার পর দেখা যায় হাওড়ার শুভঙ্কর ঘোষ মাত্র ১ ঘন্টা ২ মিনিটে দৌড় শেষ করে প্রথম স্থান অধিকার করে৷ শিলিগুড়ির রাজেশ কুমার শাহ্ ১ ঘন্টা ৫ মিনিট সময় নিয়ে দ্বিতীয় ও পশ্চিম মেদিনীপুরের অর্জুন টুডু ১ ঘন্টা ৬ মিনিটে পৌঁছে তৃতীয় স্থান অধিকার করেছেন৷

উদ্যোক্তাদের পক্ষে সাংসদ সৌমিত্র খাঁ জানিয়েছেন, এবার এই প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার ১ লক্ষ টাকা, দ্বিতীয় পুরস্কার ৫০ হাজার টাকা ও তৃতীয় পুরস্কার ৩০ হাজার টাকা ও সফল প্রতিযোগিদের দু’হাজার টাকা দিয়ে পুরস্কৃত করা হবে৷ এলাকার উদ্যোগে খুশি এলাকার মানুষ৷ জেলার যুব সম্প্রদায়কে ক্রীড়া ক্ষেত্রে উৎসাহিত করতে এই উদ্যোগ কাজে লাগবে বলে অনেকে মনে করছেন৷ ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতার শেষে বিষ্ণুপুর স্টেডিয়ামে দাঁড়িয়ে প্রথম স্থানাধিকারী হাওড়ার শুভঙ্কর ঘোষ বলেন, “খুব ভালো লাগছে৷ এর আগে দেশের বিভিন্ন অংশে এই ধরণের অজস্র প্রতিযোগীতায় অংশ নিয়েছি৷ এখানের ব্যবস্থাপনা খুব ভালো ছিল৷” একই সঙ্গে তিনি বলেন আজকের সকালে আবহাওয়া অংশগ্রহণকারী দৌড়বিদদের অনুকুল ছিল৷ এখানের বিজয়ী হিসেবে প্রাপ্ত পুরস্কারের নগদ মূল্য তাঁকে আরো ভালো দৌড়বিদ হতে প্রশিক্ষণে সাহায্য করবে বলে তিনি জানান৷

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।