সেন্ট পিটর্সবার্গ: মেসি এবং রোজোর গোলে বিশ্বকাপের নক-আউট পর্বে পৌঁছেছে আর্জেন্তিনা৷ গ্রুপের শেষে ম্যাচে নাইজেরিয়াকে ২-১ হারিয়ে বিশ্বকাপে কামব্যাক করেছে মেসিরা৷ নাইজেরিয়ার সঙ্গে ম্যাচটিতে প্রথমার্ধের ১৪ মিনিটে গোলের মুখ দেখেন মেসি৷ তখনও টিভি ক্যামেরাতে দেখা যায় আকাশের দিকে তাকিয়ে এক বিচিত্র অঙ্গভঙ্গি করছেল ফুটবলের প্রাক্তন রাজপুত্র৷ পরে রোজোর গোল আর্জেন্তিনার ম্যাচ পকেটে পোরার সঙ্গে সঙ্গেই গ্যালারি থেকে মিডল ফিঙ্গার দেখান বিশ্ব ফুটবলের ‘মহম্মদ বিন তুঘলক’৷

‘ডি’ গ্রুপের আগের দু’টি ম্যাচে আর্জেন্তিনার পারফরম্যান্স খুবই খারাপ ছিল৷ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে পেনাল্টি মিস করে ভিলেন হয়েছিলেন লিও মেসি৷ পরের ম্যাচে গোলের মুুখ দেখেননি মেসি সহ পুরো টিম৷ দ্বিতীয় ম্যাচটিতে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ হারে নীল সাদা-ব্রিগেড৷ কিন্তু নাইজেরিয়ার সঙ্গে ম্যাচে মেসিদের গোলের খিদেটা ধরা পড়ছিল৷ বারবার বল নিয়ে বিপক্ষের রক্ষণ ভাঙছিলেন আর্জেন্তাইন ফুটবলাররা৷ এই চেষ্টা ও পরিশ্রমের ফলেই শেষমেশ জয় আসে৷

কিন্তু ম্যাচ শেষে হঠাৎই মিডল ফিঙ্গার কেন দেখাতে গেলেন মারাদোনা? অনেকেই মনে করছেন আর্জেন্তিনার সমালোচকদের উদ্দেশ্যেই ওই রকম অশালীন অঙ্গুলি প্রদর্শন করেছেন মারাদোনা৷ তবে এখানেও একটা ব্যাপার থেকে যায়৷ বিশ্বকাপ শুরুর আগে আর্জেন্তাইন কিংবদন্তি জানিয়েছিলেন ‘গ্রুপ পর্বও’ পেরোবে না এই আর্জেন্তিনা দল৷ আর ঠিক এটাই হতে যাচ্ছিল৷ অবশ্য বিশ্বকাপের একদম শুরুতে ‘মেসির হাতে বিশ্বকাপ দেখতে চাই’ বলেও মন্তব্য করেছিলেন মারাদোনা৷ তবে কারণ যাই হোক না কেন মারাদোনার এই বিতর্কিত ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাল হয়ে যায়৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I