স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: ফের তৃণমূল নেতাদের হুমকি দেওয়া মাওবাদী পোস্টার উদ্ধার হল বীরভূম জেলার পাড়ুইয়ে। পোস্টার স্থানীয়দের নজরে পড়তেই উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। তৃণমূলের অভিযোগ, এই ঘটনার সঙ্গে মাওবাদী নয়, বিজেপি যুক্ত রয়েছে।

জানা গিয়েছে,পাড়ুই থানা এলাকার বাতিকার পঞ্চায়েতের চাতরা গ্রামে একটি দেওয়ালে পোস্টারগুলি লাগানো ছিল। পোস্টারগুলিতে স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের নামের সঙ্গে লেখা ‘জনগণের টাকা ফেরত দাও।’

নীচে লেখা আছে মাওবাদী। পোস্টারগুলি স্থানীয়দের চোখে পড়তেই চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। সঙ্গে সঙ্গেই খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। তারা পোস্টারগুলি বাজেয়াপ্ত করেছে।

শাসকদলের কথায়, “এইসব মাওবাদী নয় বিজেপির কাজ। এলাকায় তাদের পায়ের তলায় মাটি নেই। তাই এইসব পোস্টার দিয়ে এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতে চাইছে।” যদিও তৃণমূলের অভিযোগ মানতে নারাজ বিজেপি।

তাঁদের কথায়, “উন্নয়নের নামে, চাকরি দেওয়ার নামে সাধারণ মানুষের টাকা হজম করে দিয়েছে তৃণমূল নেতারা। যারা টাকা দিয়েছে বা তৃণমূলের যারা টাকা ভাগ পায়নি, এটা তাদের কাজ। পুলিশ তদন্ত করে দেখুক।

উল্লেখ্য কিছুদিন আগে ১৩ জন তৃণমূল নেতার নামে পাড়ুই থানার তিনটি গ্রামে মাওবাদী পোস্টার পড়েছিল। সেই পোস্টারেও লেখা ছিল “জীবন দাও। জনগণের টাকা ফেরত দাও।”

ওইদিনের ঘটনার পিছনেও বিজেপির যোগ রয়েছে বলে দাবি করেছিল তৃণমূল। সেইসময় অনেক মনে করেছিলেন, রাজনৈতিক কোন্দলের কারণেই হয়তো কেউ মাওবাদীদের নাম করে ভয় দেখানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এর আগে ১৫ অগস্ট স্বাধীনতা দিবসের সকালে বেলপাহাড়ি ব্লকের ভুলাভেদা গ্রাম পঞ্চায়েতের ভুলাভেদা থেকে বাঁশপাহাড়ি যাওয়া পথে ঝাড়গ্রাম পুরুলিয়া পাঁচ নম্বর রাজ্য সড়কের উপর বাঁকশোল, শালতল নামে দু’টি গ্রামে কালা দিবস পালনের আর্জি জানিয়ে মাওবাদীদের নাম নামাঙ্কিত পোস্টার পড়ে।

সেপ্টেম্বর মাসেও বেলপাহাড়ি থেকে বাঁশপাহাড়ি যাওয়ার পথে হরদা গ্রামের মোড়ে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে লাল কালিতে লেখা মাওবাদী নামাঙ্কিত পোস্টার দেখতে পান স্থানীয় মানুষ।

রাস্তার সাইনবোর্ড এবং রাস্তার কাজে ব্যবহার হওয়া গাড়িগুলির উপর এই পোস্টারগুলি সাঁটানো ছিল। কিন্তু এদিন ফের নতুন করে পোস্টার পড়ায় উদ্বেগ বাড়ল প্রশাসনের।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।