স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: NRC ইস্যুতে ফের উত্তপ্ত অসম। অনেক দিন ধরেই জাতীয় নাগরিক পঞ্জির জন্য অসম রাজ্যটি উঠে এসেছে সংবাদের শিরোনামে। ইতিমধ্যে NRC-র চূড়ান্ত খসড়া প্রকাশ পেয়েছে। সেখানে দেখা যায় ১৯, ০৬, ৬৫৭ জনের নাম বাদ গিয়েছে। কিন্তু, এই ১৯ লক্ষের মধ্যে অনেকে NRC-র জন্য আবেদনই করেননি– এমন তথ্যও উঠে আসতে শুরু করেছে। জাতীয় নাগরিক পঞ্জির বিরোধিতায় একাধিকবার বোমা ফাটাতে দেখা গিয়েছে অসম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক তপোধীর ভট্টাচার্যকে।

এবার চূড়ান্ত খসড়া প্রকাশ পাওয়ার পর সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক অধ্যাপক তথা বিশিষ্ট কবি সুমন গুণ মুখ খুললেন। kolkata24x7.com-কে তিনি জানান, “NRC-র যে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ পেয়েছে, সেখানে দেখা যাচ্ছে উনিশ লক্ষের কিছু বেশি মানুষের নাম বাদ পড়েছে। মনে রাখতে হবে, এই সংখ্যা তাদেরও ধরে যারা আবেদন করেননি। সুতরাং আবেদন করেছেন এবং বাদ পড়েছেন যারা, সেই তালিকাটা একটু কম হওয়াই স্বাভাবিক।” তবে তিনি এ বিষয়ে আশাবেদী যে, আগামী দিনে উপযুক্ত প্রমাণের ভিত্তিতে ফের ভারতীয় নাগরিকত্ব ফির পেতে পারেন অনেকে।

অধ্যাপক সুমন গুণের কথায়, “এক্ষুনি সবকিছু শেষ হয়ে যাচ্ছে না, কারণ, এর পরেও হাইকোর্টে, সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানানোর উপায় থাকছে।” NRC-র বিরোধীতা করতে গত বছর বাংলা থেকে শাসক দলের একঝাঁক প্রতিনিধি শিলচরে গিয়েছিলেন। ফিরহাদ হাকিমের নেতৃত্বে অনেকে গেলেও সেখানকার বিমান বন্দরে তাঁদের আটক করা হয়। বলা হয়– তাঁরা অসমের শান্তি বিঘ্নিত করছেন। পরে তাঁদের সরকারি নিরাপত্তায় একটি গেস্ট হাউসে নজরবন্দি করে রাখা হয় এবং পরের দিন কলকাতায় ফিরতে বাধ্য হন তাঁরা। এর কিছুদিন পরেই কলকাতা প্রেসক্লাবে বাংলার বিদ্বজনেরা একটি প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেন। সেই প্রতিবাদ সভার শিরোনাম ছিল ‘অসমের পাশে বাংলা’।

সভায় উপস্থিত থেকে অসম রাজ্যের শাসক দল অর্থাৎ বিজেপির এই কর্মকান্ডের কঠোর সমালোচনা করেন বিশিষ্টজনেরা। সেই প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, শুভাপ্রসন্ন, সুবোধ সরকার, জয় গোস্বামী, বিভাস চক্রবর্তী, প্রসূন ভৌমিক-সহ আরও অনেকে। এবারও কি বাংলার বিদ্বজনেরা অসমের পাশে দাঁড়াতে কলকাতায় প্রতিবাদ সভা করবেন? আগামী দিনে অসমে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির শান্তিপূর্ণ সমাধান হবে কিনা সেটাই এখন দেখার।