প্রতীতি ঘোষ, ব্যারাকপুর : রাজ্য বন দপ্তরের পরিচালনাধীন ব্যারাকপুর জহরকুঞ্জ পর্যটন কেন্দ্রে সকাল থেকে পর্যটকদের ভিড় লক্ষ করা গেছে । বন দপ্তরের উদ্যোগে পর্যটকদের মনোরঞ্জনের জন্য এই পর্যটন কেন্দ্রকে দর্শনার্থীদের আকর্ষণের কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে দিনভর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল জহর কুঞ্জে ।

বছরের প্রথম দিন উৎসাহী পর্যটকদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত । জেলার নানান প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকদের ঢল নেমেছিল এই পর্যটন কেন্দ্রে ।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে সেজে উঠছে উত্তর ২৪ পরগনার গঙ্গা তীরবর্তী ব্যারাকপুর শহর । এই ব্যারাকপুর শহরকে সাজাতে উৎস্যধারা প্রকল্পের কাজ চলছে জোর কদমে । ব্যারাকপুরকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার । সেই হিসেবে ব্যারাকপুর বন দপ্তরের উদ্যোগে বছরের প্রথম দিন গঙ্গা তীরবর্তী জহরকুঞ্জ পার্ককে দর্শকদের আকর্ষণের কেন্দ্র হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে ।

আরও পড়ুন – রাস্তায় চায়ের কেটলি হাতে পুলিশ, অবাক গাড়িচালকেরা

এবছর সুন্দর করে সাজিয়ে তোলা হয়েছে বন দপ্তরের পরিচালনাধীন এই পার্কটিকে । সেই কারনে বছরের প্রথম দিন অসংখ্য দর্শনার্থী এই পার্কে এসেছে পিকনিক করতে । দর্শনার্থীদের মনোরঞ্জনের জন্য এবছর বন দপ্তরের পক্ষ থেকে জহরকুঞ্জ পার্কে দিনভর আদিবাসী নৃত্য, লোকসঙ্গীতের আয়োজন করা হয়েছে । রাজ্য সরকারের বন দপ্তরের কর্মীরা দর্শনার্থীদের নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন । বছরের প্রথম দিন জহরকুঞ্জ পার্কে বেড়াতে এসে এবং পিকনিক করতে এসে বন দপ্তরের উদ্যোগে ভীষন খুশি দর্শনার্থীরা ।

রাজ্য সরকারের বন দপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগামীদিনে এই পার্ককে মডেল পার্ক গড়বে রাজ্য বন বিভাগ । আরো নানান শিক্ষা মূলক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে পর্যটকদের আকর্ষন বাড়াতে ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I