ফাইল ছবি

বর্ধমান, পূর্ব বর্ধমান: সারদার পাশাপাশি নারদায় গা ঝাড়া দিয়ে উঠেছে। নারদা রহস্যের জট খুলতে সিবিআই একের পর এক নেতা ঘনিষ্টদের ডেকে পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এই অবস্থায় চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করলেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার। তাঁর হুঁশিয়ারি, আগামী একমাসের মধ্যে একাধিক তৃণমূল নেতাকে জেলে পাঠানো হবে।

আজ শুক্রবার বর্ধমানের হাটগোবিন্দপুরে বিজেপির দলীয় সভায় বক্তব্য রাখতে আসেন রাহুল সিনহা। ছিলেন বিজেপির জেলা সভাপতি সন্দীপ নন্দী-সহ এক ঝাঁক জেলা নেতাও। রাহুল সিনহা এদিন জানিয়েছেন, বিজেপি সরকার কাউকে ছাড়বে না। বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেস বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে সাধারণ মানুষের কাছে। তা আর ফিরে পাবে না।

পড়ুন: বিজেপি-আরএসএসকে ধন্যবাদ জানালেন রাহুল

তাঁর মতে, মোদী সরকার গরীব মানুষকে যে টাকা দিচ্ছেন, সেই টাকা মস্তান দিয়ে ভয় দেখিয়ে তুলে নিয়েছে। চোরেদের নিয়ে সরকার, পার্টি চালাবে আর নীচুতলার কর্মীদের চোর বলবে, এটা চলতে পারে না। মমতা পদত্যাগ করে রাজনৈতিক সন্ন্যাস নেওয়া উচিত। রাহুলবাবু এদিন বলেন, মমতা বন্দোপাধ্যায়ের যে জনপ্রিয়তা ছিল শেষ ৩ বছরে তাঁর সেই জনপ্রিয়তা এখন তলানিতে ঠেকেছে।

এদিন রাহুলবাবু জানান, সম্প্রতি গরু পাচার রুখতে গিয়ে বিএসএফের জওয়ানদের ওপর যে হামলা হয়েছে সে বিষয়ে তদন্ত চলছে। কাউকে ছাড়া হবে না। তিনি বলেন, এখন তৃণমূল নেতাদের গরু পাচারের ব্যবসা, কয়লা খাদান, বালি খাদানের ব্যবসা। যারা বিএসএফের জওয়ানদের বিরুদ্ধে হামলা চালিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তারা কেউ ছাড়া পাবে না।

ফাইল ছবি

তিনি বলেন, সারদা, নারদায় জড়িত যাঁরা, এক মাসের মধ্যে তাঁরা জেলে যাবে। কেউ ছাড়া পাবে না। বাংলায় বিজেপি সরকার গড়বে। সব্যসাচী দত্ত সম্পর্কে রাহুল সিনহা এদিন জানান, তিনি এখনও বিজেপিতে আসার ব্যাপারে আবেদন জানাননি। যাঁরা বিজেপিতে আসতে চাইবেন তাদের ছাকনির মধ্যে দিয়ে ছেঁকে নেওয়া হবে। সিপিএমের মত দল বিজেপি নয়।