স্টাফ রিপোর্টার, বনগাঁ: ছেলে শান্তনু ঠাকুরের গাড়ি দুর্ঘটনা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন মঞ্জুল কৃষ্ণ ঠাকুর৷ তিনি বলেন, এই গাড়ি দুর্ঘটনার পেছনে তৃণমূল ছাড়া আর কারোর হাত থাকতে পারে না৷ তৃণমূলের কে বা কারা এই চক্রান্তের সঙ্গে যুক্ত সেটা স্পষ্ট৷

এদিন বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরের সমর্থনে শনিবার সকালে কল্যাণীতে একটি রোড শো করার কথা ছিল দলের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়ের। সেই কর্মসূচিতে যোগ দিতে ঠাকুরনগরের বাড়ি থেকে কল্যাণী যাচ্ছিলেন শান্তনু। পথেই তাঁর গাড়িতে পুলিশের একটি গাড়ি মুখোমুখি এসে ধাক্কা মারে৷শান্তনু ঠাকুরকে বনগাঁর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে।

 

শান্তনু ঠাকুরের দুর্ঘটনার পরই গেরুয়া শিবির অভিযোগ করে, পুলিশের স্টিকার লাগানো গাড়ি চেপে এসে তৃণমূলের লোকজনই এই ঘটনা ঘটিয়েছে। শান্তনুকে খুনের চক্রান্ত করা হয়েছে। গোটাটাই পরিকল্পিত ছিল। এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, ‘‘কিচ্ছু হয়নি, কোনও ধাক্কাই লাগেনি। নাটক করছে।আসলে বুঝতে পেরেছে যে হেরে গিয়েছে। তাই এই সব নাটক সাজিয়েছে। মাথায় একটা লিকোপ্লাস্ট লাগিয়েছে নিজেই হাসপাতালে চলে গিয়েছে।’’

জ্যোতিপ্রিয়র দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন শান্তনুর বাবা মঞ্জুল কৃষ্ণ ঠাকুর৷ তিনি বলেন, উনি কি বললেন তাতে কিছু যায় আসে না৷ সত্যিটা সবাই বুঝতে পারছে৷ কয়েকদিন পর সব বলব৷ প্রশ্ন উঠছে, এই দুর্ঘটনায় ঠাকুরবাড়ির ছোটকর্তা কাদের দিকে ইঙ্গিত করছেন?