রাজকোট: ওয়াংখেড়েয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে আম্পায়ার দু-দু’বার আউট দিলেও রিভিউ নিয়ে বেঁচে গিয়েছিলেন৷ তারপর আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি৷ ১২৮ রানে অপরাজিত থেকে ভারতকে দুরমুশ করেছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার৷ শুক্রবার রাজকোটে দ্বিতীয় ওয়ান ডে ম্যাচেও দারুণ শুরু করেছিলেন বাঁ-হাতি অজি ওপেনার৷ কিন্তু মনীশ পাণ্ডের বিশ্বমানের ক্যাচে ড্রেসিংরুমে ফিরতে হয় ওয়ার্নারকে৷

রাজকোটে ভারতের বিরুদ্ধে ৩৪১ রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ওয়ার্নারের উইকেট হারিয়ে কিছুটা হলেও চাপে পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়া৷ ইনিংসের চতুর্থ ওভারে মহম্মদ শামির দ্বিতীয় ডেলিভারি স্কোয়ার কার্ট করতে গিয়ে মনীশের হাতে ধরা পড়েন ওয়ার্নার৷ ধারাভাষ্যকাররা লাফিয়ে মনীশের এক হাতে ক্যাচকে বিশ্বমানের বলে ব্যাখ্যা করেন৷

ঋষভ পন্তের পরিবর্তে ওয়াংখেড়েয় প্রথম ম্যাচ কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন মনীশ৷ কিন্তু ব্যাট করার সুযোগ হয়নি৷ কারণ ব্যাটিং করার সময় হেলমেটে বল লেগেছিল পন্তের৷ তবে পন্তের পরিবর্তে ফিল্ডিং করেছিলেন মনীশ৷ এদিন অবশ্য প্রথম একাদশে ঢোকেন কর্নাটকের এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান৷ তবে সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি মনীশ৷ ছ’ নম্বরে নেমে মাত্র ২ রান করে আউট হন তিনি৷

মনীশ রান না-পেলেও শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি ও লোকেশ রাহুলের ব্যাটে ভর করে ৬ উইকেটে ৩৪০ রান তোলে ভারত৷ ধাওয়ান ৯৬, রাহুল ৮০ এবং কোহলি ৭৮ রান করেন৷ রোহিত ও ধাওয়ান ওপেনিং জুটিতে ৮১ রান যোগ করার পর দ্বিতীয় উইকেটে ক্যাপ্টেন কোহলির সঙ্গে সেঞ্চুরি (১০৩) পার্টনারশিপ গড়ে ভারতীয় ইনিংসকে মজবুত ভিতের উপর দাঁড় করিয়ে দেন ধাওয়ান৷

কোহলি ব্যক্তিগত ৭৮ রানে অ্যাডাম জাম্পার বলে আউট হন৷ প্রথম ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও অজি লেগ-স্পিনারের শিকার বিরাট৷ প্রথম ম্যাচে চার নম্বরে ব্যাটিং করে রান না-পেলেও এদিন রানে ফেরেন ভারত অধিনায়ক৷ এদিন সেঞ্চুরি করলে ঘরের মাঠে সচিন তেন্ডুলকরের ২০তম ওয়ান ডে সেঞ্চুরির রেকর্ড ছুঁতে পারবেন বিরাট৷

ধাওয়ানও অল্পের জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেন৷ মাত্র ৪ রানের জন্য ওয়ান ডে ক্রিকেটে ১৮তম সেঞ্চুরি মাঠে রেখে আসেন টিম ইন্ডিয়ার বাঁ-হাতি ওপেনার৷ পাঁচ নম্বরে নেমে আক্রমণাত্মক ইনিংস উপহার দেন কর্নাটকের এই ডানহাতি৷ ৫২ বলে তিনটি ছক্কা ও ৬টি বাউন্ডারি-সহ ৮০ রান করে আউট হন রাহুল৷ এছাড়া ১৬ বলে ২০ রানে অপরাজিত থাকেন রবীন্দ্র জাদেজা৷