সৌমেন শীল, কলকাতা: রাজ্যে থাকবে না কোনও বিরোধী দল। বাংলার মাটিতে শুধুমাত্র ঘাসফুলই ফুটবে। এই লক্ষ্যে যখন এগিয়ে চলেছে শাসক তৃণমূল কংগ্রেস। ঠিক সেই সময়েই ভারতের জাতীয় কংগ্রেস যোগ দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের চার বিধায়ক। যদিও ঘটনাস্থল এই বঙ্গ নয়, পূর্ব ভারতের রাজ্য মণিপুর। ওই রাজ্যের তৃণমূল সভাপতি থৌনাউজাম শ্যামকুমার সহ সকল বিধায়কই রবিবার কংগ্রেস যোগ দিয়েছেন। জাতীয় স্তরের নেতাদের কাছ থেকে বিশেষ গুরুত্ব না পাওয়ার কারণেই এহেন কঠিন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মণিপুরের তৃণমূল কংগ্রেসের সদ্য প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি থৌনাউজাম শ্যামকুমার।

২০১২ সালে ওই রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে ছ’টি আসনে জয়লাভ করে তৃণমূল কংগ্রেস। ২০১৫ সালে বিধানসভার অধ্যক্ষ থোকচম লোকেশ্বর তিন বিধায়কের বিধায়কপদ খারিজ করে দেন। যদিও পরে একজনকে বিধানসভায় প্রবেশের অনুমতি দিয়েছিলেন অধ্যক্ষ। তারপর থেকেই ৬০ সদস্যের বিধানসভায় চারটি ঘাসফুল ফুটে ছিল। পরবর্তী বিধানসভা নির্বাচনের মুখে এহেন দলবদলের কারণে জাতীয় স্তরে স্বভাবতই অস্বস্তিতে কালীঘাট। তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে রাজি হননি। সংসদে থাকার কারণে যোগাযোগ করা হলেও মুকুল রায়ের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।