আগরতলা: প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা বিজেপির হেভিওয়েট নেতা সুদীপ রায় বর্মণ বারে বারে রাজ্য সরকারের করোনা মোকাবিলার পদ্ধতি নিয়ে সরব হচ্ছেন। এতে বিব্রত বিজেপি আইপিএফটি জোট সরকারের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও বিরোধী নেতা মানিক সরকার আরও কটাক্ষ করলেন ত্রিপুরা সরকারকে। আগরতলায় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলা করতে হীরার সরকারকে সাহায্য করুক কেন্দ্রের সরকার। সেইসঙ্গে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও হামলা সন্ত্রাসের পরিস্থিতি তুলে ধরেছেন সিপিআইএম পলিটব্যুরো সদস্য।

মানিকবাবু বলেন, উত্তর পূর্বাঞ্চলের মধ্যে করোনা হামলায় ত্রিপুরার অবস্থা খুবই খারাপ। সরকারের গাফিলতিতে রোগীরা চূড়ান্ত অব্যবস্থার শিকার হচ্ছেন। রোজগার শূন্য মানুষের জন্য সরকার উদ্যোগ নিক। জনপ্রতি ১০ কেজি চাল ও মাসে সাড়ে ৭ হাজার টাকা দেওয়া হোক।

মানিকবাবু জানান, রাজ্যে বামফ্রন্ট সরকারের আমলে আগরতলা জিবি হাসপাতাল ছিল চিকিৎসা অন্যতম। এখন অব্যবস্থার কারণে এখান থেকেই রোগীরা পালাচ্ছেন। চিকিৎসক, নার্স, চিকিৎসাকর্মীদের প্রবল ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। তারা অব্যবস্থার কারণে ক্ষুব্ধ।

সরকারের উপর সাধারণ মানুষের আস্থা হারাতে শুরু করেছে বলেও জানিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি টানা দু দশক মুখ্যমন্ত্রীর পদে ছিলেন। গত বিধানসভা নির্বাচনে ত্রিপুরায় সিরিআইএম নেতৃত্বাধীন ২৫ বছরের বামফ্রন্ট সরকারের পতন হয়।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিরোধী নেতা মানিক সরকার প্রশ্ন তুলেছেন, করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় কেন কেন্দ্র থেকে স্পেশাল টিম রাজ্যে আসবে না। একইসাথে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতির মাঝেও যেভাবে ভাড়াটে গুন্ডা দিয়ে হামলা চালানো হচ্ছে তাতে মানুষের ক্ষোভ তুঙ্গে। এভাবে সরকার তার ব্যর্থতা ঢাকতে পারবে না।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।