কলকাতা: ফেসবুক পোস্ট করে সমালোচিত কবি মন্দাক্রান্তা সেন। তিনি প্রতিক্রিয়াশীল। বিভিন্ন ঘটনার প্রেক্ষিতে মাঝে মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হন মন্দাক্রান্তা। শনিবার রাতে তেলেঙ্গানা কাণ্ডের প্রেক্ষিতে তিনি একটি পোস্ট করেন। আর তারপরেই সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

ওই পোস্টে মন্দাক্রান্তা লেখেন, “এক স্বনামধন্য ‘মানবাধিকার কর্মী’-র হিংস্র মৃত্যুদ্বণ্ড বিরোধীতার কথা জানি। অনুষ্ঠানের পর তাঁকে জিজ্ঞেস করলাম, আপনার মেয়ের সঙ্গে এমনটা হলে আপনি কি ধর্ষক ও হত্যাকারীর মৃত্যুদণ্ড চাইতেন না? তিনি ভয়ানক উত্তেজিত হয়ে বললেন, না চাইতেন না। চাইলে আমি আমার পথ থেকে বিচ্যুত হতাম।

আমি একদিনের জন্য পুরুষ হয়ে চাই। আপনার কন্যাকে ধর্ষনের বীভৎস মজা লুটে নিতে চাই। নিয়ে মরে দিতে চাই। আমার মৃত্যুদণ্ড হলে জানি আপনিই আমার হয়ে লড়বেন। আমাকে শুধু একটুখানি সংশোধন করে দেবেন স্যার। আমিও বলব, স্যার আর করব না। ব্যাস, মিটে যাবে।”

একটি টিভি চ্যানেলে তেলেঙ্গানা কাণ্ড নিয়ে আলোচনায় গিয়েছিলেন মন্দাক্রান্তা সেন। সেখানেই ‘স্বনামধন্য মানবাধিকার কর্মী-র’ সঙ্গে মতান্তর হয়। আর তারপরেই এমন ফেসবুক পোস্ট করে বসেন তিনি। কিছুক্ষণের মধ্যেই পোস্টের স্ক্রিনশট তুলে ফেসবুকে প্রতিবাদে সরব হন নেটিজেনরা।

অনেকে মনে করিয়ে দেন, এমন মন্তব্য একজন কবিকে মানায় না। কিছু সময় পরেই নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্টটি ডিলিট করেন মন্দাক্রান্তা। কিন্তু ততক্ষণে ওই ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনশট ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এ বিষয়ে কবি মন্দাক্রান্তা সেনের মতামত জানতে চেয়ে তাঁকে ফোন করা হলে তিনি ফোন ধরেনি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ