প্যারিস: ২০১৯ শেষবার প্যারিসের মাটিতে গিয়ে পিএসজি’কে ৩-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার নিশ্চিত করেছিল তারা। ২০২০-তে আরও একবার প্যারিস থেকে জিতে ফিরছে লাল ম্যাঞ্চেস্টার। অ্যাওয়ে ম্যাচে নেইমারদের হারিয়ে ২০২০-২১ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স যাত্রা শুরু হল ওলে গানার সোল্কজায়েরের দল। ২০১৯-র মতোই প্যারিসে গিয়ে গোল তুলে নিলেন মার্কাস রাশফোর্ড। বলা ভালো ইংরেজ স্ট্রাইকারের জয়সূচক গোলেই তিন পয়েন্ট এল ম্যান ইউ’য়ের ঘর।

প্রিমিয়র লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচে নিউক্যাসেলকে ৪-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শুরুর আগে প্রয়োজনীয় আত্মবিশ্বাস জোগাড় করে নিয়েছিল ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। সেই আত্মবিশ্বাসকে সঙ্গে করেই এদিন পার্ক দে প্রিন্সেস স্টেডিয়ামে ইতিবাচক ভঙ্গিতেই শুরু করে তারা। ২০ মিনিটে লুক শ’র বল নিজের দখলে নিয়ে বক্সের মধ্যে টার্ন করতে গিতে বাধা পান অ্যান্থনি মার্শিয়াল। দিয়ালো অবৈধভাবে ফরাসি স্ট্রাইকারকে বাধা দিলে পেনাল্টি পায় ম্যান ইউ। সেখানেও নাটক। হ্যারি ম্যাগুয়ারের অনুপস্থিতিতে এদিনের অধিনায়ক ব্রুনো ফার্নান্দেজের নেওয়া স্পটকিক রুখে দেন পিএসজি গোলরক্ষক কেইলর নাভাস।

কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় গোললাইন থেকে অনেকটাই এগিয়ে ছিলেন নাভাস। তাই পুনরায় স্পটকিক নেওয়ার সুযোগ পায় ম্যাঞ্চেস্টারের দলটি। এবার কোনও ভুলচুক না করে দলকে এগিয়ে দেন ফার্নান্দেজ। প্রথমার্ধে দু’টি ক্ষেত্রে গোলের নীচে ম্যাঞ্চেস্টারের ত্রাতা হয়ে ওঠেন ডেভিড দি গিয়া। বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া অ্যাঞ্জেল দি মারিয়ার একটি কার্লিং শট এবং পয়েন্ট ব্ল্যাংক রেঞ্জ থেকে কুরজাওয়ার একটি প্রয়াস রুখে দেন স্প্যনিশ গোলরক্ষক।

এক গোলে পিছিয়ে থাকা পিএসজি বিরতির পর গোল পরিশোধের লক্ষ্যে তেড়েফুঁড়ে ওঠে। বক্সের মধ্যে এমবাপের জোরালো ভলি দুরন্ত সেভ করে আরও একবার নায়ক হয়ে ওঠেন গিয়া। কিন্তু ৫৪ মিনিটে মার্শিয়ালের আত্মঘাতী গোলে সমতা ফেরায় পিএসজি। নেইমারের কর্নার ক্লিয়ার করতে গিয়ে বল জালে প্রবেশ করিয়ে দেন ফরাসি স্ট্রাইকার। কিন্তু গোল হজম করে দমে যায়নি লাল ম্যাঞ্চেস্টার। বরং পিএসজি রক্ষণে আক্রমণ বজায় রাখে তারা। আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে জমে ওঠা ম্যাচে নির্ণায়ক হয়ে ওঠে ৮৭ মিনিটে রাশফোর্ডের গোল।

এক্ষেত্রে দিনের তৃতীয় সুযোগে বাজিমাত করে যান ইংরেজ স্ট্রাইকার। বল ধরে বক্সের একেবারে প্রান্ত থেকে তাঁর মাটি ঘেঁষা দুরন্ত শট পোস্টে লেগে প্রবেশ করে জালে। আর এই গোলের সঙ্গে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয় সোল্কজায়েরের দলের। হ্যারি ম্যাগুয়ার, ম্যাসন গ্রিনউড, এরিক বেলিকে ছাড়া ম্যাঞ্চেস্টারের এই জয় যথেষ্ট প্রশংসার। তাছাড়া কাভানির খেলার কথা থাকলেও পুরোপুরি ফিট না হওয়ায় পুরনো দলের বিরুদ্ধে স্কোয়াডে ছিলেন না ঊরুগুয়ে তারকা।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।