লন্ডন: টটেনহ্যামের কাছে হাফ ডজন গোল হজম করার পর শনিবার নিউক্যাসেল ম্যাচটা ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের কাছে ছিল ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই। কিন্তু ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচেও শুরুতে বিপত্তি। ম্যাচ শুরুর ১০২ সেকেন্ডে লুক শ’র আত্মঘাতী গোলে এদিন পিছিয়ে পড়ে রেড ডেভিলসরা। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি নষ্ট ব্রুনো ফার্নান্দেজের। তবুও নিউক্যাসেল ইউনাইটেডকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে প্রিমিয়র ঘুরে দাঁড়াল ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। অ্যাওয়ে ম্যাচে এদিন ওলে গানার সোল্কজায়েরের দলের ৪-১ গোলে জয় যথেষ্ট ইতিবাচক।

খেলা শুরুর দু’মিনিটের মধ্যে এমিল ক্র্যাফতের ক্রস ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে দেন লেফট-ব্যাক লুক শ। ২৩ মিনিটে জুয়ান মাতার কর্নারে মাথা ছুঁইয়ে সেই গোল ফিরিয়ে দেন অধিনায়ক হ্যারি ম্যাগুয়ার। লিগ শুরুর আগে গ্রীসে ছুটি কাটাতে গিয়ে স্থানীয় পুলিশের সঙ্গে বচসা। এরপর ডিফেন্সের অন্যতম স্তম্ভ হিসেবে স্পারসের কাছে ৬ গোল হজম। কিংবা নেশনস লিগে ডেনমার্কের বিরুদ্ধে দিনকয়েক আগে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়া। সবমিলিয়ে ক্রমাগত সমালোচনায় বিদ্ধ ম্যাগুয়ারের কাছে এই গোল অনেকটাই স্বস্তির।

অধিনায়কের সমতাসূচক গোলে ভর করেই দ্বিতীয়ার্ধে পুরো পয়েন্টের জন্য ঝাঁপায় ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। ৫৭ মিনিটে নিউক্যাসেল ডিফেন্সের প্রাচীর টপকে বল নিয়ে বক্সে ঢোকার চেষ্টা করলে বাধা পান মার্কাস রাশফোর্ড। কিন্তু ইংরেজ স্ট্রাইকারকে আটকাতে গিয়ে তাঁকে ফাউল করে বসেন বিপক্ষ ডিফেন্ডার জামাল লুইস। পেনাল্টি পায় ম্যান ইউ। দলের হয়ে গত সাতটি পেনাল্টিতে নিশানায় অব্যর্থ থাকা ব্রুনো ফার্নান্দেজের স্পটকিক সেভ করে এযাত্রায় নায়ক বনে যেতে পারতেন নিউক্যাসেল গোলরক্ষক ডার্লো।

কিন্তু শেষ দশ মিনিটে ম্যান ইউ আক্রমণের কাছে আত্মসমর্পণ করে নিউক্যাসেল ডিফেন্স। প্রতি-আক্রমণে বিপক্ষকে মাটি ধরিয়ে দেন ব্রুনো, রাশফোর্ড, ভ্যান ডে-বিকরা। ৮৬ মিনিটে লাল ম্যাঞ্চেস্টারের গোলটি একটি দুরন্ত টিম গেমের ফসল। নিজেদের অর্ধ থেকে ভ্যান ডে বিক বল বাড়ান মাতাকে। মাঝমাঠে সেই বল ধরে মাতা বল বাড়িয়ে দেন রাশফোর্ডের উদ্দেশ্যে। বল নিজের নিয়ন্ত্রণে রেখে বিপক্ষ বক্সে ঢুকে রাশফোর্ড ব্যাকহিলে তা ফার্নান্দেজের উদ্দেশ্যে ঠেলে দেন। একা গোলরক্ষককে পেয়ে বল জালে ঠেলতে ভুল করেননি পর্তুগিজ। একইসঙ্গে পেনাল্টি নষ্টের প্রায়শ্চিত্ত করেন তিনি।

নির্ধারিত সময়ের অন্তিম মিনিটে ওয়ান বিসাকার জোরালো ভলি জড়িয়ে যায় নিউক্যাসেলের জালে। ৩-১ গোলে এগিয়ে যাওয়া ম্যান ইউকে সংযুক্তি সময়ে চতুর্থ গোলটি এনে দেন মার্কাস রাশফোর্ড। দ্বিতীয় এবং তৃতীয় গোলের নেপথ্য নায়ক এক্ষেত্রে ব্রুনোর বাড়ানো লম্বা বল ধরে হতোদ্যম নিউক্যাসেল ডিফেন্সকে সহজেই বোকা বানিয়ে ৪-১ করেন।

লিগের অন্য ম্যাচে এদিন আর্সেনালকে ঘরের মাঠে ১-০ গোলে হারিয়েছে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। ২৩ মিনিটে স্কাই ব্লুজ’দের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন রহিম স্টার্লিং।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।