ম্যাঞ্চেস্টার: লকডাউনের আগে প্রথম লেগে অ্যাওয়ে ম্যাচে জয় এসেছিল ৫-০ গোলে। স্বাভাবিকভাবেই দ্বিতীয় লেগের আগে ইউরোপা লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে উন্নীত হওয়ার ব্যাপারে খুব একটা ভাবনা-চিন্তার অবকাশ ছিল না ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের। লকডাউন পরবর্তী সময়ে ইউরোপের মেজর সকার লিগগুলো শেষ হওয়ার পর এবার শুরু হল কন্টিনেন্টাল টুর্নামেন্ট। আর লকডাউন পরবর্তী ইউরোপা লিগের প্রথম ম্যাচে লিনজার অ্যাথলেটিক স্পোর্ট ক্লাবের বিরুদ্ধে প্রত্যাশিত জয় তুলে নিল ওলে সোল্কজায়েরের ছেলেরা।

অস্ট্রিয়ার ক্লাবটির বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে দ্বিতীয় লেগে ২-১ গোলে জিতল রেড ডেভিলসরা। এগ্রিগেটে ৭-১ গোলে জয়লাভ করে শেষ আটে ম্যান ইউ। যদিও দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে বুধবার লাস্কের বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়ে সোল্কজায়েরের দল। প্রিমিয়র লিগের শেষ ম্যাচে লেস্টারের একাদশে ৯টি পরিবর্তন এনে এদিন দল সাজিয়েছিলেন ম্যান ইউ কোচ। স্বাভাবিকভাবেই প্রথমার্ধে প্রত্যাশিত পারফর্ম করতে ব্যর্থ হয় তাঁরা। প্রথম ৪৫ মিনিটে একটিও অন-টার্গেট রাখতে ব্যর্থ হয় ম্যান ইউ। পাশাপাশি ক্রসবার এবং সার্জিও রোমেরোর দস্তানায় গোল হজমের হাত থেকে রক্ষা পায় ইউনাইটেড।

সবমিলিয়ে প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্য অবস্থায়। তবে ৫৫ মিনিটে উইসিঙ্গারের ২৫ গজের দূরপাল্লার শটটি জালে জড়িয়ে যাওয়ার সময় শরীর শূন্যে ছুঁড়েও নাগাল পাননি রোমেরো। যদিও ঘরের মাঠে সেই গোল ফিরিয়ে দিতে দু’মিনিটের বেশি সময় লাগেনি ম্যান ইউ’য়ের। জুয়ান মাতার পাস ধরে সোলো রানে বিপক্ষের পেনাল্টি বক্সে পৌঁছন লিংগার্ড এবং ঠান্ডা মাথায় বল জালে রাখেন। সমতা ফেরানোর পর ম্যান ইউ’য়ের জার্সি গায়ে সিনিয়র দলে অভিষেক হয় তেন্ডেন মেঞ্জির।

নির্ধারিত সময়ের দু’মিনিট আগে ম্যান ইউ’য়ের জয় নিশ্চিত করেন সুপার-সাব অ্যান্থনি মার্শিয়াল। মাতার সঙ্গে ডুয়েলে দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন ফরাসি স্ট্রাইকার। আগামী ১১ অগস্ট কোয়ার্টার ফাইনালে এফসি কোপেনহেগেনের মুখোমুখি ম্যান ইউ। উল্লেখ্য, সদ্য-সমাপ্ত প্রিমিয়র লিগে তৃতীয়স্থানে শেষ করে আসন্ন মরশুমে চ্যাম্পিয়ন্স প্রত্যাবর্তন ঘটেছে ম্যান ইউ’য়ের।

লাস্কের বিরুদ্ধে এদিনের কষ্টার্জিত জয় নিয়ে বলতে গিয়ে ম্যান ইউ’য়ের নরওয়েন কোচ জানান, ‘দলের কয়েকজন ছেলে অনেকদিন পর মাঠে নেমেছিল। কেউ কেউ তো আবার লকডাউনের পর প্রথম মাঠে নামল। সবমিলিয়ে আমার কাছে ভালো অভিজ্ঞতা। কার্যসিদ্ধি হয়েছে আমি তাতেই খুশি।’

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা