লন্ডন: চেলসিকে তাদের ঘরের মাঠে হারিয়ে লিগ কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিল ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড৷ স্ট্যাম্পফোর্ড ব্রিজে দ্য ব্লুজদের ২-১ গোলে পারজিত করে রেড ডেভিলসরা৷ ম্যাঞ্চেস্টারের হয়ে দুই অর্ধে দু’টি গোল করেন মার্কাশ রাশফোর্ড৷ মাঝে একবার গোল করে চেলসিকে সমতায় ফিরিয়ে ছিলেন বাতশুয়ায়ি৷

ওলে গানার সোল্কজায়েরের দল এই নিয়ে সব ধরণের টুর্নামেন্ট মিলিয়ে টানা তিনটি অ্যাওয়ে ম্যাচে জয় তুলে নেয়৷ রাশফোর্ড দু’টি গোলই করেন সেটপিস থেকে৷ প্রথমার্ধে পেনাল্টি থেকে চেলসির জালে বল জড়ান তিনি৷ দ্বিতীয়ার্দধ রাশফোর্ড দলের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন অনবদ্য ফ্রি-কিক থেকে৷

আরও পড়ুন: উইলিয়ামসের গোলে ফের জয় এটিকে’র

গত সেপ্টেম্বরে ঘরের মাঠে লিভারপুলের কাছে ১-২ গোলে হারের পর থেকে সব টুর্নামেন্ট মিলিয়ে টানা সাতটি ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছিল চেলসি৷ অবশেষে সেই জয়ের ধারায় ছেদ পড়ল ল্যাম্পার্ডদের৷

ম্যাচের ২৪ মিনিটের মাথায় জেমস বল নিয়ে চেলসির বক্সে ঢুকে পড়লে তাঁকে অবৈধভাবে আটকান অলোনসো৷ রেফারি পেনাল্টি দিতে দ্বিধাবোধ করেননি৷ স্পট কিক থেকে গোল করে রাশফোর্ড ম্যাঞ্চেস্টারকে ১-০ গোলে এগিয়ে দেন৷ প্রথমার্ধে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে মাঠ ছাড়ে ইউনাইটেড৷

আরও পড়ুন: থ্রিলার ম্যাচে আর্সেনালকে হারিয়ে কোয়ার্টারে লিভারপুল

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৬১ মিনিটে ম্যাঞ্চেস্টারের জালে বল জড়িয়ে স্কোর-লাইন ১-১ করেন বাতশুয়ায়ি৷ ৭২ মিনিটে চেলসি বক্সের ঠিক সামেন ফ্রি-কিক পেয়ে যায় ম্যাঞ্চেস্টার৷ স্পট কিক থেকে দ্বিতীয়বার দ্য ব্লুজদের জালে বল জড়ান রাশফোর্ড৷ বাকি সময়ে আর কোনও গোল না হওয়ায় চেলসিকে বিদায় নিয়ে হয় টুর্নামেন্ট থেকে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।