ম্যাঞ্চেস্টার: বৃহস্পতিবার রাতে চেলসির কাছে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি হারতেই নির্ধারিত হয়ে গিয়েছে ২০১৯-২০ ইংলিশ প্রিমিয়র লিগের ভাগ্য। তিন দশকের খরা কাটিয়ে ৭ ম্যাচ বাকি থাকতেই ইপিএলের শিরোপা ম্যান সিটির থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে রেডস’রা। আগামী বৃহস্পতিবার কার্যত নিয়মরক্ষার ম্যাচে ইতিহাদে সিটিরই মুখোমুখি হবে লিভারপুল। আর ওই ম্যাচে চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে সম্মান জানিয়ে ‘গার্ড অফ অনার’ দেবে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি।

চ্যাম্পিয়নশিপ নিশ্চিত হওয়ার পর লিগের প্রথম ম্যাচটা গতবারের চ্যাম্পিয়নদের ঘরের মাঠেই খেলতে নামছেন সালাহরা। তাই নতুন চ্যাম্পিয়নদের সম্মান জানাতে এর চেয়ে ভালো সুযোগ আর হয় না। স্বাভাবিকভাবেই সুযোগের পূর্ণ সদ্ব্যবহার করতে প্রস্তুত স্কাই ব্লুজ’রা। কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা এপ্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘আমরা লিভারপুল দলকে ওইদিন নিশ্চিতভাবে গার্ড অফ অনার দেব। ওরা আমাদের ঘরে আসছে, স্বাভাবিকভাবেই আমরা ওদের অভিনন্দন জানাব অভিনব উপায়ে। ওদের কোনও অভিযোগ আর থাকবে না। আর নিঃসন্দেহে ওদের এটা প্রাপ্য।’

সূত্রের খবর, খেতাব ধরে রাখতে না পারায় ভিতর ভিতর যথেষ্ট আফসোস রয়েছে বছর ঊনপঞ্চাশের স্প্যানিশ কোচের। তবে লিভারপুলকে ‘গার্ড অফ অনার’ দেওয়ার ভাবনাটি পেপ গুয়ার্দিওলারই। আগামী বছর আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসার বার্তা তিনি ইতিমধ্যেই দিয়েছেন। পেপ জানিয়েছেন, ‘খেলাধুলায় তোমায় বাস্তবটা গ্রহণ করতে শিখতে হয়। কী হয়েছে ভুলে যাও। মাথায় রেখো এই ক্লাব একটা অসাধারণ ক্লাব একটা অসামান্য প্রতিষ্ঠান।’

গুয়ার্দিওলা আরও বলেন, ‘ছেলেরা জানে এবছর তাঁদের কোথায় সমস্যা হয়েছে। আগামী মরশুমে সেই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে আমরা নতুন করে শুরু করব।’ উল্লেখ্য, চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য লিভারপুলকে ইতিমধ্যেই শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন ক্লাবের দুই প্রাক্তন ফুটবলার লুইস সুয়ারেজ এবং ফার্নান্দো টোরেস। অধিনায়ক জর্ডন হেন্ডারসন এবং তাঁর প্রাক্তন সতীর্থদের জন্য লিভারপুল টেলিভিশনকে দেওয়া অভিনন্দন বার্তায় সুয়ারেজ জানান, ‘জর্ডন এবং সমস্ত লিভারপুল ফুটবলার- তোমাদের জন্য এবং তোমাদের পরিবারের জন্য আজ আমি ভীষণ খুশি। আমি আশা করি তোমরা ভীষণ মজা করছো কারণ লিভারপুল সমর্থকদের আজ ভীষণ খুশির দিন।’ শুধু সুয়ারেজ নন, লিভারপুলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ক্লাবের আরেক প্রাক্তনী ফার্নান্দো টোরেস।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ