লন্ডন: প্রিমিয়র লিগ খেতাব ধরে রাখার সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই অনন্য নজির গড়ল পেপ গুয়ার্দিওলার ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। শনিবার ওয়েম্বলিতে এফএ কাপ ফাইনালে ওয়াটফোর্ডকে ৬-০ গোলে দুরমুশ করে প্রথম ক্লাব হিসেবে ব্রিটিশ ফুটবলে ত্রিমুকুট জয় করল স্কাই ব্লুজ’রা।

ফেব্রুয়ারিতে লিগ কাপ জয়ের পর গত সপ্তাহে টানা দ্বিতীয়বারের জন্য প্রিমিয়র লিগ খেতাব ঢুকেছে ম্যান সিটির ঘরে। এরপর ব্রিটিশ ফুটবলে প্রথম ক্লাব হিসেবে ত্রিমুকুট জয়ের অপেক্ষায় প্রহর গুনছিলেন ম্যান সিটি অনুরাগীরা। শনিবার ওয়েম্বলিতে কাঙ্খিত এফএ কাপ জয়ের সঙ্গে সঙ্গেই নিজেদের এক অন্য উচ্চতায় তুলে নিয়ে গেল প্রিমিয়র লিগ চ্যাম্পিয়নরা। শুধু তাই নয়। ইংল্যান্ডের সবচেয়ে প্রাচীন এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে রেকর্ড ব্যবধানে জয় তুলে নিল তারা। একইসঙ্গে স্পর্শ করল ১১৬ বছর আগের রেকর্ড।

১৯০৩ এফএ কাপ ফাইনালে একই ব্যবধানে ডার্বি কাউন্টিকে দুরমুশ করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বুরি। শনিবাসরীয় ফাইনালে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে হ্যাটট্রিক করে ম্যান সিটির জয়ের নায়ক ইংরেজ স্ট্রাইকার রহিম স্টার্লিং। পাশাপাশি স্কোরশিটে নাম তুললেন দাভিদ সিলভা, গ্যাব্রিয়েল জেসুস ও কেভিন দি ব্রুয়েনা। ম্যাচে এগিয়ে যাওয়ার প্রথম সুবর্ণ সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে পারেনি প্রিমিয়র লিগে একাদশ স্থানে শেষ করা ওয়াটফোর্ড। ২৬ মিনিটে দাভিদ সিলভার বাঁ-পায়ের দুরন্ত ভলি ম্যাচে এগিয়ে দেয় সিটিকে। ৩৮ মিনিটে প্রিমিয়র লিগ চ্যাম্পিয়নদের হয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রহিম স্টার্লিং।

বার্নার্দো সিলভার ডিফেন্স চেরা থ্রু দুরন্ত অনুধাবন করেন ব্রাজিলিয়ান জেসুস। তাঁর আলতো টোকা গোলে ঢোকার মুখে পা ছোঁয়ান স্টার্লিং। দ্বিতীয়ার্ধে সিটিকে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন সুপার সাব দি ব্রুয়েনা। ৬১ মিনিটে জেসুসের পাস থেকে বিপক্ষ গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে সহজ ফিনিশ করেন বেলজিয়ান মিডিও। এরপর ৬৮ মিনিটে দলের হয়ে ব্যবধান ৪-০ করেন জেসুস। ৮১ এবং ৮৭ মিনিটে ওয়াটফোর্ডের কফিনে শেষ পেরেকদুটি পুঁতে হ্যাটট্রিক সম্পূর্ণ করেন রহিম স্টার্লিং।

তিন বছরে ক্লাবকে ষষ্ঠ ট্রফি দিয়ে এবং প্রথম ক্লাব হিসেবে ত্রিমুকুট জয়ের অনন্য নজির গড়ে সিটি ম্যানেজার গুয়ার্দিওলা জানান, ‘আমি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে ভালোবাসি। কিন্তু ঘরোয়া ফুটবলে ত্রিমুকুট জয় আমার মতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের চেয়ে বেশি কঠিন।’