ম্যাঞ্চেস্টার: প্রিমিয়র লিগে পেপ গুয়ার্দিওয়ার মাইসস্টোন স্থাপণের দিনে লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থান আপাতত নিরাপদ করল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি৷ ঘরের মাঠে বছরের শেষ ম্যাচে শেফিল্ড ইউনাইটেডকে ২-০ গোলে পরাজিত করল সিটি৷ চলতি প্রিমিয়র লিগে এটি তাদের ১৩ নম্বর জয়৷ তবে সার্বিকভাবে গুয়ার্দিওলার কোচিংয়ে এটি ম্যান সিটির ১০০তম প্রিমিয়র লিগ ম্যাচ জয়৷

শেফিল্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচের প্রথমার্ধ গোল শূন্য থাকে৷ দ্বিতীয়ার্ধে সিটির হয়ে দু’টি গোল করেন যথাক্রমে সার্জিও আগুয়েরো ও কেভিন ডি’ব্রুইন৷ শেফিল্ডের হয়ে প্রথমার্ধেই সিটির জালে বল জড়িয়েছিলেন মউসেট৷ তবে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে রেফারি অফ-সাইড ঘোষণা করায় গোল বাতিল হয়৷ না হলে ঘরের মাঠে প্রথমার্ধেই গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়তে হতো গুয়ার্দিওলাদের৷

আরও পড়ুন: খেলতে খেলতে মাঠেই মারা গেলেন তিন প্রধানে চুটিয়ে খেলা ডিফেন্ডার

ম্যাচের ২৯ মিনিটে মউসেট সিটি গোলরক্ষককে একা পেয়ে যান৷ আভ্রান্ত নিশানায় বল জালে রাখলেও একযোগে অফ-সাইডের আবেদন জানায় সিটি ফুটবলাররা৷ রেফারি টেলিভিশন রি-প্লে যাচাই করে গোল বাতিলের সিদ্ধান্ত নেন৷ ম্যাচে আরও দু’বার শেফিল্ড ফুটবলারদের শট ম্যান সিটির পোস্টো প্রতিহত হয়৷

৫২ মিনিটে ডি’ব্রুইনের পাস থেকে বল ধরে আগুয়েরো শেফিল্ড গোলকিপারের মাথার উপর দিয়ে গোল করে সিটিকে ১-০ এগিয়ে দেন৷ ৮২ মিনিটে মাহরেজের পাস থেকে দুরন্ত গোল করেন ডি’ব্রুইন৷

আরও পড়ুন: ভিএআরের সৌজন্যে উলভস ‘বধ’ লিভারপুলের

এই জয়ের সুবাদে ২০ ম্যাচে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির সংগৃহীত পয়েন্ট দাঁড়ায় ৪১৷ তারা আপাতত লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থানে রয়েছে৷ দ্বিতীয় স্থানে থাকা লেস্টারের থেকে মাত্র ১ পয়েন্টে পিছিয়ে রয়েছে গুয়ার্দিওলার দল৷ শেফিল্ড ২০ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে ৮ নম্বরে নেমে যায়৷ অথচ জিতলে পাঁচ নম্বরে উঠে আসার সুযোগ ছিল শেফিল্ডের সামনে৷