কলকাতা: লকডাউন এর মধ্যেই চুপিসারে আইনি বিয়ে সেরে ফেলেছিলেন অভিনেত্রী মানালি দে এবং পরিচালক অভিমুন্য মুখোপাধ্যায়। এবার ঘরোয়া ভাবেই আনুষ্ঠানিক বিয়েও সেরে ফেললেন তারকা জুটি। করোনা আবহের জেরে এই বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন মানালি ও অভিমন্যুর পরিবারের সদস্যরা।

পরিবার ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের উপস্থিতিতে এদিন মালাবদল এবং সিঁদুর দান পর্ব সারলেন মানালি ও অভিমন্যু। লকডাউন চলাকালীন আইনি বিয়ে সেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন তারকা জুটি। তারপর থেকেই অপেক্ষা ছিল কবে হবে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের আয়োজন। সোমবার সেই দিয়েও সেরে ফেললেন মানালি ও অভিমন্যু।

টলিপাড়ার বহু অভিনেতা ও শিল্পীরা তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এছাড়াও মানালি অভিমুন্য অনুরাগীরাও শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছেন তাদের। বিয়ে উপলক্ষে মানালি পরেছিলেন গোলাপি রঙের একটি বেনারসি শাড়ি। সঙ্গে ছিল মানানসই সোনার গয়না। অন্যদিকে ঘরোয়া পরিবেশে থাকায় ছিমছাম সাদা রঙের একটি পাঞ্জাবি পরেছিলেন অভিমুন্য।

প্রসঙ্গত, টলিপাড়ায় কান পাতলেই শোনা যেত মানালি ও অভিমুন্যর সম্পর্কের কথা। কিন্তু কাজের ব্যস্ততার জন্য বিয়েটা করা হয়ে ওঠেনি। তাই হঠাৎ সকলকে চমকে দিয়েই লকডাউনে আইনি বিয়ে সেরেছিলেন দুজনে। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেরা সে খবর দিয়েছিলেন।

মানালির এর আগে বিয়ে হয় গায়ক সপ্তক ভট্টাচার্যের সঙ্গে। ২০১২ সালে তাঁরা বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু সেই সম্পর্ক বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। অবশেষে দুজনের বিচ্ছেদের পথ বেছে নেন। ২০১৬-য় বিবাহবিচ্ছেদ হয় তাঁদের। তার বেশ কিছুদিন পরে অভিমুন্য সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান মানালি দে। তাঁরা নিজেরা প্রকাশ্যে কিছু না বললেও টলিপাড়ায় গুঞ্জন ছিল। পরে অবশ্য তাঁরা নিজেদের সম্পর্কের ব্যাপারে খোলাখুলি ছিলেন। মানালি প্রায়ই নিজের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করতেন।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।