ফাইল ছবি

হায়দরাবাদ: বন্ধুর মেয়ের বিয়েতে সোজা হেলিকপ্টার নিয়ে হাজির হল মেয়ের বাবার এক বন্ধু। তবে এই কাজ করতে গিয়ে অবশ্য বেশ বিপাকে পড়েছেন সেই বন্ধু। পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন তিনি। অন্ধ্রপ্রদেশের নেললোর জেলায় এই কাণ্ড ঘটেছে।

বন্ধুর মেয়ের বিয়ের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে হেলিকপ্টারে করে পরিবার নিয়ে আসেন ওই বন্ধু। হেলিকপ্টারে আসা ওই পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ, ওই এলাকায় হেলিকপ্টার নামানোর অনুমতি নেননি ওই ব্যক্তি। গ্রামে হেলিকপ্টার অবতরণের ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

জানা গিয়েছে হায়দরাবাদের চলচ্চিত্র নির্মাতা ও প্রাক্তন বিমান আধিকারিক রামকোটেশ্বর রাও তাঁর বন্ধু জনার্দন রেড্ডির মেয়ের বিয়েতে অংশ নিতে রেভুরু গ্রামে পৌঁছন। কিন্তু হেলিকপ্টার অবতরণের অনুমতি না থাকায় বর্তমানে মুশকিলে পড়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য মঙ্গলবার এই ঘটনা ঘটে। এই বিষয়ে রাও জানিয়েছেন, তিনি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের অনুমতি নিয়েছিলেন। তবে জেলা প্রশাসন সে কথায় কান না দিয়ে মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশ রাও ও হেলিকপ্টার সংস্থাসহ মোট ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। পুলিশের বক্তব্য, এই লোকেরা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং এসপি’র কাছ থেকে গ্রামে হেলিকপ্টার নামানোর কোনও অনুমতি নেয়নি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I