প্রতীকী ছবি

লখনউ: ফের নারী নির্যাতনের জেরে শিরোনামে যোগী রাজ্য। হাথরস কান্ডের পরে গোটা দেশ জুড়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হওয়ার পরেই একাধিক বার উত্তরপ্রদেশে সামনে এসেছে নারী নির্যাতনের ঘটনা। যা নিয়ে সরব সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বিরোধী রাজনৈতিক নেতারাও। তবে এবারে সামনে এল এক ঘৃণ্য ঘটনা। ঘুমন্ত এক কলেজ পড়ুয়াকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশে।

জানা গিয়েছে, ২২ বছর বয়সী ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন তাঁর এক আত্মীয়। ঘটনাটি ঘটেছে গিরওয়া জেলাতে। বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে তদন্ত।

পুলিশের তরফে জানা গিয়েছে ওই তরুণী নিজের ২৫ বছর বয়সী এক আত্মীয়ের দ্বারা ধর্ষিত হয়েছিলেন। এও জানা গিয়েছে অভিযুক্ত ব্যক্তি ওই তরুণীর বাড়ি গিয়েছিলেন। সেখানে গিয়ে ওই তরুনীকে ঘুমন্ত অবস্থাতে দেখে সেখানেই তাঁকে ধর্ষণ করেন। পাশপাশি ওই সম্পূর্ণ ঘটনার একটি ভিডিও করেন বলেও জানা গিয়েছে পুলিশের তরফে। পাশপাশি অভিযুক্ত ব্যক্তি ঘটনাটি কাউকে না জানানার জন্য ওই তরুনীকে হুমকি দেয় বলেও জানা গিয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে তদন্ত। বিগত কিছুদিনে ক্রমেই উত্তর প্রদেশে প্রশ্ন চিহ্নের মুখে নারী নিরাপত্তা। হাথরস কান্দের পরে যা প্রবল হয়ে দাঁড়িয়েছিল। সামনে এসেছিল একের পর এক ঘটনা।

অবশেষে বিষয়টি নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত শুরু হলেও পরবর্তী কালে একের পর এক ঘটনা সামনে আসাতে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে উত্তর প্রদেশের প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিয়েও। তবে তাঁর মধ্যে এই ঘটনা সামনে আসাতে ফের প্রশ্ন উঠতে শুরু করল নারী নিরাপত্তা নিয়ে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।