মুম্বই: স্বামীকে খুনে অভিযুক্ত তার স্ত্রী এবং প্রেমিক। খুনের ঘটনায় সাহায্য করার অভিযোগ আরও দুজনের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি এই হাড়হিম করা ঘটনার কথা সামনে এসেছে মুম্বইতে। ঘটনাস্থল অভিজাত মালাড এলাকা। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে মুম্বই পুলিশ।

গত ২০ ডিসেম্বর মালাডের মাধমার্ব এলাকার বাসিন্দা মহেশ প্যাটেলের মৃত্যু এবং তার অন্তিম ক্রিয়া করা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছিল স্থানীয় পুলিশ। কিন্তু তদন্তে নেমে যে এই মারাত্মক অপরাধ সামনে আসবে তা ভাবেননি কেউই।

এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, শুরু থেকেই এই মৃত্যু এবং ডেথ সার্টিফিকেট নিয়ে তাঁদের সন্দেহ ছিল। পরবর্তীকালে বিস্তারিত তদন্ত করার ফলে কেঁচো খুড়তে কেউটে বের হয়। ওই ব্যক্তির স্ত্রী এবং তার প্রেমিক অরূপ সর্বেশ্বর দাস দুজনেই এই ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত। তাদের ঘুমের ওষুধ যোগাড় করে দিয়েছিলেন সাগর শর্মা নামক এক অটো চালক। ওই ওষুধ খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ার পরে অরূপ। এরপর বালিশ দিয়ে শ্বাসরোধ করে মহেশকে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। খুন করার পরে স্থানীয় এক ডাক্তারের কাছ থেকে তারা জাল ডেথ সার্টিফিকেট যোগাড় করেছিল বলে জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই অরূপ দাস এবং খুনে যুক্ত থাকার কারণে সাগর শর্মাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে তার স্ত্রী এবং স্থানীয় ওই ডাক্তারের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

এর আগে ২০১৭ সালে বারাসাতে মনুয়া এবং তার প্রেমিক মিলে স্বামী অনুপম সিং কে পরিকল্পনা করে খুন করে। পরবর্তীকালে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এবার সেই একই ধরনের ঘটনা বানিজ্যনগরীতে হওয়ায় অবাক সাধারণ মানুষ।