গুয়াহাটি: দেশের সাংবিধানিক এবং প্রশাসনিক প্রধানকে নিয়ে তৈরি কার্টুন ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করার অপরাধে গ্রেফতার করা হল এক যুবককে।

ধৃত যুবকের নাম জারির আহমেদ বারভুইয়া। অসমের কালাইনের বাসিন্দা ওই যুবক বিতর্কিত একটি কার্টুন ‘আমার আপনার প্রিয় শহর আগরতলা’ নামক একটি গ্রুপে পোস্ট করেছিল।

শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বা রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে নিয়ে নয়, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিজেপি সভাপতি তথা সাংসদ অমিত শাহ এবং আরএসএস প্রধান মোহন ভগবতও রয়েছেন সেই কার্টুনে। যেখানে দেখানো হয়েছে যে উক্ত সকল ব্যক্তিরা এক মহিলাকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করছে।

উক্ত পোস্টে যে দেশের সম্মানিত ব্যক্তিদের অপমান করা হয়েছে তা বলাই বাহুল্য। সেই পোস্ট করার জন্য জারির আহমেদ বরাভুইয়ার বিরুদ্ধে শিলচর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন রাজেশ দাস নামক এক ব্যক্তি। শিলচরের বাসিন্দা রাজেশের অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেফতার করা হয় জারির আহমেদকে।

গত ২৬ এপ্রিল জারির আহমেদকে গ্রেফতারের পর কাছার পুলিশের পক্ষ থেকে ফেসবুক পোস্ট করেই বিষয়টি সম্পর্কে সকলকে অবগত করা হয়। একই সঙ্গে জানানো হয় যে এই ধরনের বিতর্কিত কোনও পোস্ট করলে পুলিশের পক্ষ থেকে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জারির আহমেদ যে কার্টুন পোস্ট করেছিল তা তার নিজের তৈরি নয়। উক্ত কার্টুন তৈরি করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকার জাপিরো নামক একটি সংস্থা। সেই ছবি সুপার ইম্পোজ করে সেখানে প্রধানমন্ত্রী মোদী, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এবং সঙ্ঘ প্রধান মোহন ভগবতের মুখ বসিয়ে দেওয়া হয়।

জাপিরো নির্মিত কার্টুনটি প্রকাশিত হয়েছিল ‘দ্যা সানডে টাইমস অফ সাউথ আফ্রিকা পত্রিকায়’। উক্ত কার্টুনে আক্রমণ করা হয়েছিল ওই দেশের রাষ্ট্রপতিকে। সেই কার্টুন তৈরির অপরাধে জাপিরো কর্তা জন্নাথন জাপিরো সাপিরো-র বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছিল । যদিও পরে সেই মামলা তুলে নিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপতি জ্যাকোব জুমা।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।