স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: ভোট পরবর্তী সংঘর্ষ পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে অব্যাহত৷ গণনার দিন বিজেপির হয়ে রান্না করার অপরাধে এক ব্যক্তির দোকান ঘরে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে৷ ঘটনাটি পূর্ব বর্ধমানের গাংপুর হাটতলার৷

দোকান মালিক রাম প্রসাদ বাগ জানিয়েছেন, এই দোকান চালিয়ে তার সংসার চলে৷ তার দোকানটি সাইকেল সারানোর দোকান৷ পাশাপাশি তিনি রান্নার কাজও করেন৷ গণনার দিন বিজেপির পক্ষ থেকে রান্নার অর্ডার পান। সেই কারণে তৃণমূল কংগ্রেস তার দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে তিনি অভিযোগ করেন৷

বিজেপির আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সাধারণ সম্পাদক উত্তম সেনগুপ্ত৷ তিনি জানান, জেলা জুড়ে ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের ঘটনায় জেলা পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে৷ এদিন পুলিশ সুপার না থাকায় তাঁরা মৌখিকভাবে জানিয়েছেন। এই ধরণের ঘটনা রোধে প্রশাসনকে সঠিক ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে।

বিজেপির জেলা সভাপতি সন্দীপ নন্দীর মতে, বিক্ষুব্ধ তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরাই দলীয় নেতাদের দুর্নীতি এবং স্বজন পেষণের অভিযোগে বিজেপির নাম করে অশান্তি করছে। এব্যাপারে দলীয় কর্মীদের সজাগ দৃষ্টি রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর বর্ধমান জেলা জুড়ে বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের পার্টি অফিস বিজেপি দখল করে নেওয়ার ঘটনায় রীতিমত উল্লসিত বাম শিবির। ইতিমধ্যেই তাঁরা এব্যাপারে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন রকমের পেস্টও করতে শুরু করেছেন। শুধু তাই নয়, বিজেপি তৃণমূলের এই দ্বন্দ্বের মাঝে ২০১১ সালে তৃণমূলের বন্ধ করে দেওয়া সিপিএম পার্টি অফিসগুলিও কোথাও কোথাও খুলতে শুরু করে দিয়েছে সিপিএম।