নিবেদিতা দে,কলকাতা: শিয়রে লোকসভা নির্বাচন৷ আসন্ন সেই নির্বাচনে বাংলা দখলের লড়াই-এ তৃণমূলের সঙ্গে পা-এ পা মিলিয়ে লড়াইয়ের ময়দানে নেমেছে প্রতিপক্ষ বিজেপি৷ আর তাতেই খানিকটা হলেও চিন্তার কারণ দেখছে শাসক শিবির৷ যদিও তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় তা মানতে একেবারেই নারাজ৷

রবিবার তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করে তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, লোকসভা নির্বাচনে ১২ সদস্যের নির্বাচনী কমিটি গঠন করা হয়েছে৷ নির্বাচনের যাবতীয় কাজকর্ম আলোচনা, পর্যালোচনা করবেন এই কমিটি৷ তবে কি লোকসভায় পুরো প্রস্তুতি নিয়ে ময়দানে নামছে ঘাসফুল শিবির? পার্থবাবুর কথায়, ‘‘ভোটের সময় আমাদের নতুন করে ময়দানে নামতে হয় না৷ যারা দিল্লি থেকে এসে হেলিকপ্টারে নামেন আবার উড়ে যান, তাদের ময়দানে নামার প্রয়োজন আছে৷’’

কি দায়িত্ব এই ১২ সদস্যের নির্বাচনী কমিটির? পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, নির্বাচন পরিচালনার সমস্ত দায়িত্ব থাকবে এই কমিটির ওপর৷ নির্বাচনের সময় প্রার্থীপদ অনুমোদনের জন্য দলনেত্রীর কাছে পাঠানো থেকে নির্বাচনী প্রাচর সবটাই দেখভাল করবে এই কমিটি৷ শুধু তাই নয়, ভোটের আগে তৃণমূল কংগ্রেসের উন্নয়নমূলক কাজের খতিয়ান সাধারণ মানুষের কাছে কিভাবে তুলে ধরা যায় সেই দিকটাও দেখবে তারা৷

কে কে থাকছে এই ১২ সদস্যের কমিটিতে? পার্থবাবু জানিয়েছেন, দলের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রায় সকলেই রয়েছেন এই কমিটিতে৷ সুব্রত বক্সি, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, শুভেন্দু অধিকারী, ফিরহাদ হাকিম, অরূপ বিশ্বস, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, শশী পাঁজা, মলয় ঘটক, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, সুব্রত মুখোপাধ্যায় ও ডেরেক ও’ব্রায়েন৷

লোকসভায় বিজেপিকে রুখতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর ‘কোর ব্যাটেলিয়নদের’ ওপরই ভরসা রাখছেন তাতে কোনও সন্দেহ নেই৷ তবে রাজনৈতিক মহলের একাংশের কথায়, ঘাসফুল শিবিরে যেভাবে দিনদিন গোষ্ঠী কোন্দল বাড়ছে তাতে এই কোর ব্যাটেলিয়নদের ওপর মমতার ভরসা অনেকেই হয়তো অন্য চোখে দেখতে পারে৷ যদিও দলনেত্রী মমতা দলের সকল বৈঠকেই কর্মীদেরকে একাধিকবার বার্তা দিয়ে রেখেছেন, দল যাকে যা দায়িত্ব দেবে তাকে সেটাই পালন করতে হবে৷