কলকাতা: হাসপাতালের পর আজ বৃহস্পতিবার বাজার পরিদর্শন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পোস্তা, জানবাজার-সহ একাধিক বাজারে যান তিনি। সেখানে সোস্যাল ডিসটেন্স বজায় রাখার জন্য নিজে হাতেই রাস্তায় কেটে দিলেন গন্ডি৷ সাধারণ মানুষকে সতর্ক করে দিলেন। যেন কোনওভাবেই এই লক্ষণগন্ডি না পের হন কেউ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মাকে সঙ্গে নিয়ে কলকাতার বাজার পরিদর্শনে বের হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাজার খোলা রাখার নির্দেশ দেন তিনি। পুলিশ আধিকারিকদের সবজি বিক্রেতাদের জন্য বিশেষ পাসের ব্যবস্থা করতে বললেন। পাশাপাশি ব্যবসায়ীদের সন্ধ্যা পর্যন্ত বাজার খোলা রাখারও নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার বাজারে সাধারণ মানুষ কীভাবে দাঁড়াবেন এঁকে দেখান মুখ্যমন্ত্রী ৷

আজ বৃহস্পতিবার বাজারে গিয়ে নিজের হাতে রাস্তায় এঁকে দেন গন্ডি। তবে হাতে কলমে নয়, কলমের পরিবর্তে হাতে ছিল ইটের টুকরো। তাই দিয়ে দোকানের সামনে টেনে দিলেন লক্ষ্মণরেখা। গতকাল বুধবারও সাংবাদিক সম্মেলনে ছবি এঁকে তিনি বুঝিয়েছিলেন বাজারে গিয়ে কিভাবে অন্যের থেকে দূরত্ব বজায় রাখবেন ৷ ইতিমধ্যেই কলকাতার কয়েকটি জায়গায় দোকানের সামনে গণ্ডি কেটে দেওয়া হয়েছে।

 

যাতে একজনের থেকে আরেকজন নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে দাঁড়াতে না ভোলেন। করোনা সংক্রমণ কমাতে দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কার্যত আতঙ্কে ওষুধ, সবজি, মুদির দোকান খোলা দেখলেই ভিড় বাড়াচ্ছেন মানুষ। সকালে সবকিছু ভুলে ভিড় জমাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

আর সেই জটলা থেকেই আশঙ্কাও বাড়ছে সংক্রমণের। এই পরিস্থিতিতে রাস্তায় নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী নিজে। মুখ্যমন্ত্রী বারবার বলেছেন, দোকানে কেনাকাটার সময় বাইরে যেন জটলা না হয়, সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং মেনে চলতে হবে সবাইকে। আর তা মানুষের একেবারে মাথায় ঢুকিয়ে দিতে নিজেই রাস্তায় কেটে দিলেন গন্ডি।