কলকাতা: কথা দিয়েছিলেন। রাখলেও সেই কথা। তিনি মমতাময়ী মুখ্যমন্ত্রী। বাড়ির কাছেই কাজের সুযোগ পেলেন চারশোর বেশি স্বাস্থ্যকর্মী। বদলি করে বাড়ির কাছে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। জানা যাচ্ছে, ৪১৫ জন মেডিক্যাল টেকনোলজিস্টকে রাজ্যের বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র, হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজে বদলি করা হয়েছে।

চাহিদা অনুযায়ী এঁদের প্রায় প্রত্যেককেই ‘হোম ডিস্ট্রিক্ট’ বা বাড়ির কাছের হাসপাতালে বদলি করা হয়েছে। এর ফলে এই সমস্ত কর্মীদের বাড়ি থেকে আর অন্যত্র থাকতে হবে না। রোজ যাতায়াত করতে পারবে তাঁরা। বাড়ির কাছে পোস্টিং হলে ভালো হয়, দীর্ঘদিনে দাবি সরকারি কর্মীদের একাংশের।

সেই সময় মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, তিনি চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের বাড়ির কাছে সাধ্যমতো বদলির সুযোগ দেবেন। সেই নির্দেশের পর জেনারেল ডিউটি মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগের সময় চাকরিপ্রার্থী ডাক্তারদের তাঁদের পছন্দসই হাসপাতালে পোস্টিং দেওয়া হয়।

স্বাস্থ্যকর্তাদের একটি বড় অংশেরই বক্তব্য, স্ত্রী-পুত্র-কন্যা-পরিবার কাছে থাকলে স্বাস্থ্যকর্মী ও চিকিৎসকরা মানসিকভাবে চাঙ্গা থাকেন। কঠিন পরিস্থিতিতে অবসাদ গ্রাস করে না। তাছাড়া এমন সরকারি সুবিধা পেলে অনেক সময় বেসরকারি ক্ষেত্রে মোটা টাকার আর্থিক প্যাকেজ ও সুযোগ-সুবিধার প্রলোভনকেও জয় করতে পারেন তাঁরা, এমনটাই মনে করেন শীর্ষ স্বাস্থ্যকর্তারা।

তাঁরা জানিয়েছেন, এই বিপুল সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মীকে বাড়ির কাছে বদলি নজিরবিহীন ঘটনা। বাংলা এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডাঃ অজয় চক্রবর্তী জানিয়েছেন, আনুমানিক সাড়ে চারশো মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট বাড়ির কাছে বদলির আর্জি জানিয়েছিলেন। ৮৫ শতাংশের আবেদনই মঞ্জুর করা হয়েছে। বাকিদের ক্ষেত্রে যেখানে যেখানে ওঁরা চেয়েছিলেন, পদ থাকলে নিশ্চয়ই করে দেওয়া হতো।

তবে সূত্রের খবর, আগামিদিনে এই বিষয়ে আরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কাজে গতি আনতে পরিবারের সঙ্গে যাতে কর্মচারীরা থাকতে পারেন সেই বিষয়ে আরও ভাবনা চিন্তা শুরু হয়েছে রাজ্য প্রশাসন স্তরে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ