ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: হাসপাতাল পরিদর্শনের পরেও স্বাভাবিক হয়নি পরিস্থিতি৷ বরং পরিস্থিতি আরও ঘোরাল হচ্ছে৷ এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা স্বাভাবিক করতে৷ সে কথায় কোনও কাজ না হওয়ায় এবার নবান্নে জরুরি বৈঠকের ডাক মুখ্যমন্ত্রীর৷

সূত্রের খবর, হাসপাতালের অচলাবস্থা কাটাতে নবান্নে একটি উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক শুরু হয়েছে৷ সেখানে হাজির রয়েছেন, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য,মুখ্যসচিব ও স্বাস্থ্যসচিবসহ অন্যান্য আধিকারিকরা৷

আন্দোলনকারী ডাক্তারদের দাবি ছিল,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হাসপাতালে আসতে হবে৷ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী কেন আহত জুনিয়র ডাক্তারকে দেখতে গেলেন না,তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে৷ বৃহস্পতিবার হঠাৎ স্বাস্থ্যমন্ত্রী এস এস কে এম হাসপাতালে যান৷ সেখানে গিয়ে তিনি আন্দোলনকারীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন৷ কথা বলেন রোগী ও তাদের পরিবারের সঙ্গে৷ এরপরই মমতার নির্দেশ চার ঘন্টার মধ্যে ডাক্তাররা কাজে যোগ না দিলে তাদের সুযোগ সুবিধা বন্ধ করে দেওয়া হবে৷ যদিও আন্দোলনকারীরা তার কথায় কর্ণপাত করেনি৷ বরং আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে দেশ জুড়ে৷

এদিন এসএসকেএম-এ মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পরেই , আন্দোলনরত জুনিয়র ডাক্তাররা এনআরএস হাসপাতালে ডিডি মিটিং করেন । মুখ্যমন্ত্রীর আচরণে তারা আঘাত পায়৷ তার পরে জানিয়ে দেন,তারা যেখানে সুবিচার চাইছেন সেখানে কোনও রকম সহানুভূতির বদলে মুখ্যমন্ত্রী কার্যত তাঁদের হুমকি দিচ্ছেন। আর এই হুমকির কাছে তারা মাথা নত করতে রাজি নন এবং পাল্টা দাবি করেন, মুখ্যমন্ত্রীকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে।