Mamata Banerjee Narendra Modi

কলকাতা: নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোসের জন্মদিনে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি তোলের রেশ এখনও কাটেনি। সরকারি অনুষ্ঠানে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি তোলার অনুষ্ঠানকে অপমানিত করা হয়েছে অভিযোগ তুলে সভায় বক্তব্য রাখেননি তিনি। এবার সম্ভবত সেই কারণেই হলদিয়ায় সরকারি অনুষ্ঠানে না যাওয়ার কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ নিয়ে ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর থেকে প্রধানমন্ত্রী অফিসকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

রবিবার, ৭ ফেব্রুয়ারি হলদিয়া আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পূর্ব মেদিনীপরের হলদিয়ায় কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের অনুষ্ঠানে আসবেন তিনি। এদিন তিনি প্রথমে রাজনৈতিক সভা করবেন। তারপর একাধিক সরকারি প্রকল্পের শিলান্যাস ও উদ্বোধন করবেন তিনি। সরকারি এই অনুষ্ঠানে থাকবেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরকে ইতিমধ্যেই এ কথা জানিয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর।

গত ২৩ জানুয়ারি ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজির জন্মদিনের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এক মঞ্চে দেখা গিয়েছিল। সেদিন মুখ্যমন্ত্রী মঞ্চে বক্ততা দিতে ওঠার পরই ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ওঠে দর্শক আসন থেকে। এর প্রতিবাদে সেদিন বক্তৃতা দেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, সরকারি অনুষ্ঠানে এমন কাজ একেবারেই কাম্য নয়। কাউকে নিমন্ত্রিত করে ডেকে এনে অপমান করার কোনও মানে হয় না বলেও সেদিন জানান মমতা। সম্ভবত সেই কারণেই এদিনের সভায় অনুপস্থিত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

মুখ্যমন্ত্রীর এদিনের অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়ে কটাক্ষ করেছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, সরকারি অনুষ্ঠানে স্বাভাবিকভাবেই মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রিত করা হয়েছিল। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী আসবেন না বলে জানিয়েছেন। এটা সম্পূর্ণ তাঁর সিদ্ধান্ত। কিন্তু উনি যদি ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি এড়াতে না যান, তবে সেটা ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করেন দিলীপ। বলেন, অন্য জায়গাতেও তো ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি উঠবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কত জায়গা এড়াবেন?

তবে প্রধানমন্ত্রী সভায় এদিন থাকবেন তৃণমূল সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। মনে করা হচ্ছে দিব্যেন্দু ১০ ফেব্রুয়ারি সাংসদ পদ ত্যাগ করতে পারেন। তার আগে প্রধানমন্ত্রীর সভায় উপস্থিত থেকে আখের গুছিয়ে নিতে চাইছেন তিনি।

এদিন বেলা ৩টে ১০ মিনিটে কলকাতা বিমানবন্দরে নামবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বেলা ৩টে ৫০ মিনিটে তিনি হলদিয়া পৌঁছবেন। তারপর সেখানে রাজনৈতিক সভা করবেন তিনি। বিকেল ৪টে ৫০ মিনিটে যোগ দেবেন সরকারি অনুষ্ঠানে। এদিন প্রাকৃতিক গ্যাসলাইনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া রানিচকে রেল ওভারব্রিজেরও উদ্বোধন করবেন। ধোবি-দু্র্গাপুর গ্যাসলাইন এবং BPCL-এর এলপিজি টার্মিনালের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে তাঁর।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.