সুমন বটব্যাল, কলকাতা: মুকুল-ঝড় রুখতে তবে কি গরুতেই ভরসা রাখতে হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে?

প্রশ্ন উঠছে দলের অন্দরেই৷ সৌজন্যে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিনব সিদ্ধান্ত৷ কন্যাশ্রী, যুবশ্রীর পর এবার জেলায় জেলায় গ্রামীণ এলাকায় গরু বিলি করতে চলেছে রাজ্য সরকার৷ নবান্ন সূত্রের খবর, ডিসেম্বরের মধ্যেই জেলায় জেলায় গরু বিলি করবে রাজ্য সরকার৷ ইতিমধ্যে বীরভূমে বিলি করা হয়েছে ১০০০ গরু৷ আগামী দিনে রাজ্যের প্রতিটি জেলায় গরু বিলি করা হবে৷

হঠাৎ গরু বিলির পথে কেন রাজ্য সরকার? নাম প্রকাশ করব না এই শর্তে নবান্নের এক কর্তার সরস মন্তব্য, ‘‘মুকুল আনুগত্য রুখতেই গরুতে ভরসা রাখতে হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীকে৷’’ মুকুল ঘনিষ্ট সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই দক্ষিণবঙ্গের ২০ জন বিধায়ক তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন৷ এছাড়াও জেলায় জেলায় তৃণমূলের বিক্ষুদ্ধরা ‘দাদা’র সঙ্গে অহ-রহ যোগাযোগ রাখছেন৷ সেই খবর পৌঁছে গিয়েছে তৃণমূল ভবনেও৷ স্বভাবতই নিন্দুকেরা বলতে শুরু করেছেন, মানুষের মন পেতে গরুতেই ভরসা রাখতে হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীকে৷ মুকুল ঘনিষ্ট এক নেতার মন্তব্য, ‘‘দেখেছেন তো আমাদের দাদার ক্ষমতা কতখানি, শেষে কি না দিদিমণিকে গরু বিলিতেও নামতে হল!’’

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে গরু বিলি করবে প্রাণী সম্পদ দফতর৷ সরকারের তরফে দাবি করা হচ্ছে, গ্রামীণ পরিবারগুলিকে স্বনিরর্ভর করার স্বার্থেই গরু বিলির সিদ্ধান্ত। পরিবার পিছু দেওয়া হবে ১টি করে গরু৷ যদিও নিন্দুকেরা বলতে শুরু করেছেন, মুকুল-ঝড় রুখে মানুষকে সঙ্গে রাখতে গরুতেই ভরসা রাখছে রাজ্য সরকার৷

- Advertisement -