স্টাফ রিপোর্টার, মেদিনীপুর: তৃণমূল কংগ্রেসের লক্ষ্য যে ২০১৯, তা আরও একবার বোঝালেন দলের নেতারা৷ ওই বছর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে হারাতে মরিয়া বাংলার শাসক দল৷ শনিবার মেদিনীপুর কলেজ কলেজিয়েট ময়দান থেকে সেই কথা বারবার স্পষ্ট করে দিলেন শুভেন্দু অধিকারীরা৷

আরও পড়ুন: উমা-ঝুমাকে টপকে ভাইরাল ‘হলুদ বউদি’ বাংলার ক্রাশ

বিজেপিকে হারানোর পর দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান তৃণমূলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা৷ সেকথাই এদিনের সভায় স্পষ্ট করে জানালেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী৷

গত ১৬ জুলাই একই মাঠে সভা করেছিল বিজেপি৷ ওই কৃষক কল্যাণ সভার প্রধান বক্তা ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ সেই সভার পালটা সভা এদিন ডাকা হয়েছিল তৃণমূলের তরফে৷ তাই শনিবার সভার প্রতিটি বক্তাই সেদিনের উদাহরণ টেনে বিজেপির সমালোচনা করেছেন৷

আরও পড়ুন: বান্ধবীর সঙ্গে বিশ্বকাপজয়ী তারকার ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি ভাইরাল

ব্যতিক্রম নন তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা শুভেন্দু অধিকারীও৷ তাঁর অভিযোগ, কোটি কোটি টাকা খরচ করে বিজেপি লোক এনেছিল৷ কিন্তু এদিনের সভায় তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা স্বতস্ফুর্ত যোগ দিয়েছেন৷

তাই অবিভক্ত মেদিনীপুরের পাঁচটি লোকসভা আসনেই জিতবে তৃণমূল৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রত্যাশা মতোই রাজ্যের ৪২টি আসনই তৃণমূল জিতবে৷ আর তার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী হবেন বলে মনে করেন শুভেন্দু অধিকারী৷

আরও পড়ুন: বুকে ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি মণিরত্নম