স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: দলের নেতাদের কাটমানি ফেরতের নির্দেশ দিয়ে বিজেপির হাতে অস্ত্র তুলে দিয়েছিলেন তিনি নিজেই। বিজেপি সেই সুযোগের পূর্ণ সদ্ব্যবহার করছে দেখে বাধ্য হয়ে নয়া কৌশল নিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার একুশের মঞ্চ থেকে বিজেপিকেও পাল্টা কাটমানি ফেরতের চাপ দিলেন।

কাটমানি ইস্যুতে তৃণমূলকে চেপে ধরেছে বিজেপি। মাঠে-ময়দান থেকে, সংসদ ভবন, সর্বত্র হইচই ফেলে দিয়েছে তারা। পরিস্থিতি যে বেগতিক সেটা বুঝেই এদিন তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘সরকারি প্রকল্পে যাতে প্রত্যেকের কাছে সুষ্ঠু ভাবে পৌঁছয়, সেজন্য মহৎ উদ্দেশ্য নিয়েই তার উপর নজরদারির কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু, রাজনৈতিক স্বার্থপূরণ করতে বিজেপি কাটমানি ফেরতের দাবি তুলেছে।’

এদিন কাটমানির পাল্টা হিসেবে বিজেপির বিরুদ্ধে ব্ল্যাকমানি ফেরতের দাবিতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

একুশের জনসভায় মমতার অভিযোগ, ‘‘গত লোকসভা নির্বাচনে হিসেব বহির্ভূত টাকা খরচ করেছে বিজেপি। বিদেশ থেকেও টাকা সাহায্য পেয়েছে তারা।’’ সেই টাকার হিসেব দেওয়ার দাবি করেন তিনি।
একুশে জুলাই বক্তব্য শেষের পর কর্মী-সমর্থকদের চাঙ্গা করতে কিছু চিরাচরিত স্লোগান দেন তৃণমূল নেত্রী। এবার তাঁর নতুন স্লোগান ছিল, “বিজেপি সরকার ব্ল্যাকমানি ফিরিয়ে দাও… নোটবন্দির কাটমানি ফিরিয়ে দাও…রাফালের কাটমানি ফিরিয়ে দাও।”

কাটমানি ইস্যুতে দলীয় কর্মীদের আন্দোলন শুরুর নির্দেশ দিয়েছেন মমতা। ফলে আগামী কয়েকদিনে কাটমানি ইস্যুতে রাজ্য রাজনীতি আবার উত্তাল হতে চলেছে।